প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

আব্দুল্লাহ আল ইমরান

বাগেরহাট প্রতিনিধি

বিডি২৪লাইভ এ সংবাদ প্রকাশের পর বিতর্কিত পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার বদলি আদেশ স্থগিত

   
প্রকাশিত: ৭:৫২ অপরাহ্ণ, ৫ অক্টোবর ২০২২

অবশেষে বিডি২৪লাইভে সংবাদ প্রকাশের পর বিতর্কিত পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা তুহিন কান্তি ঘোষ পদোন্নতি নিয়ে বাগেরহাট জেলায় উপ-পরিচালক হিসাবে বদলি আদেশ স্থগিত করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও পরিবার কল্যান বিভাগের পক্ষে উপসচিব মোহাম্মদ মোহসীন উদ্দিন স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ নতুন আদেশ দেওয়া হয়। তার পরিবর্তে ৬ অক্টোবর জেলা পরিবার পরিকল্পনা উপপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহন করবেন মোঃ আকিব উদ্দিন। তুহিন কান্তি ঘোষের বদলি আদেশ স্থগিত হওয়ার কারনে পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের সাথে সংশ্লিষ্ট সকল দায়িত্বশীলদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন বিভিন্ন মহল।

এ দিকে গত ২৮ সেপ্টেম্বর স্বাস্থ্য ও পরিবার মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য ও শিক্ষা বিভাগের এক বদলি আদেশ আসার পর থেকে গোটা বাগেরহাটে বিষয়টি নিয়ে নানা আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়েছিল। পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতরের বাগেরহাটে কর্মরতরাই এ বদলী আদেশ শুনে চরম আতংকে পড়েছিলেন। পরে খোজ নিয়ে জানা যায়, ২০০৭ থেকে ২০১৭ পর্যন্ত ফকিরহাট উপজেলায় পঃপঃ কর্মকর্তা হিসাবে দায়িত্ব পালন কালে অধিনস্থ স্যাকমো এবং এফডবিউভিদের বিপদে ফেলে কৌশলে প্রতিনিয়ত অর্থ আদায় করতো। পিকনিক, টেলিভিশন ক্রয়সহ নানা অজুহাতে অধিনস্থদের নিকট থেকে চাঁদা আদায়সহ নারী কেলেংকারিতে জড়িয়ে পড়ে সে। উপায়ন্তর না পেয়ে দুর্নীতিবাজ ওই কর্মকর্তা তুহিন কান্তি ঘোষের বিরুদ্ধে গত ২০১১ সালের ১৬ মার্চ পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতরের মহা-পরিচালক বরাবরে অভিযোগ দায়ের করেন ক্ষতিগ্রস্তরা। এর পর ২০১৭ সালে অধিদফতর থেকে তুহিন কান্তি ঘোষকে খুলনার কয়রায় বদলী করা হয়। সেখানেও সে নারী কেলেংকারীতে জড়িয়ে পড়লে তাকে বরিশালে বদলী করা হয়। যদিও সে ওই আদেশ মানেন নাই।

এদিকে ফকিরহাটের ঘটনায় তদন্তকালে ফকিরহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার অতিরিক্ত দায়িত্ব পালনকারি ডাঃ শাহরিয়ার শামীমকে তুহিন কান্তি ঘোষ প্রকাশ্য জনস্মুখে হত্যার হুমকি দেয় এবং ডাঃ শাহরিয়ার শামীমের বিরুদ্ধে কয়েকজনের জাল স্বাক্ষর দিয়ে অধিদফতরে অভিযোগ দেয়া তুষার কান্তি ঘোষ। যা তদন্তে মিথ্যা প্রমাণিত হয়। এছাড়া এ রকম একাধিক অভিযোগ ছিল এই তুহিন কান্তি ঘোষের বিরুদ্ধে। ফলে তার বদলি আদেশ শুনে বিভিন্ন স্থানে শুরু হয়েছিল আলোচনা-সমালোচনা। এ ধরনের একধরনের দূর্নিতীবাজকে বাগেহাটে নিয়োগ মোটেও মেনে নিতে পারছিল না বাগেরহাটের মানুষ। ফলে বিভিন্ন মিডিয়ায় সংবাদ প্রকাশের পর কর্তৃপক্ষ বিষয়টি আমোলে নিয়ে তার বদলি আদেশ স্থগিত করেছে। এখন তার বদলি আদেশ স্থগিত হওয়ায় চরম খুশি বাগেরহাটের মানুষ।

শাকিল/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: