প্রচ্ছদ / রাজনীতি / বিস্তারিত

মেহেদি হাসান হাসিব

নিজস্ব প্রতিবেদক

জনগনের ধারনা ইভিএম ফল উল্টে দেওয়ার মেশিন: চুন্নু

   
প্রকাশিত: ৩:২২ অপরাহ্ণ, ৬ অক্টোবর ২০২২

জাপা মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু বলেন,জনগণের ধারণা হলো ইভিএম ফল উল্টে দেওয়ার মতো একটা মেশিন। ফলে যারা মেশিন চালায় তাদের দোষ। ইভিএম এ নির্বাচনের উপর সবসময় আমাদের আপত্তি আমরা ইভিএম নির্বাচন চাই না। বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১০ জাতীয় পার্টি মহাসচিব মোঃ মুজিবুল হক চুন্নুর নেতৃত্বের একটি টিম প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) এর সাথে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে দেখা করতে আসেন। সিইসির সাক্ষাৎ শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

ইভিএম ফল উল্টে দেওয়া যায় মতো একটা মেশিন বলে জনগনের মনে ধারনা রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন,’ মেশিনের দোষ নেই, মেশিন যারা চালায় তাদের দোষ। কাজেই ইভিএমে নির্বাচনের বিষয়ে আমাদের সবসময়ই আপত্তি। আমরা ইভিএমে নির্বাচন চাই না। আপত্তি সত্ত্বেও গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে ধরে রাখার জন্য এই নির্বাচনে গেলাম। আগামী নির্বাচনে কি করবো সেটা পরিস্থিতির উপর সিদ্ধান্ত নিব। আমরা ভোট বর্জনের রাজনীতি করি না। তবে আগামী সংসদ নির্বাচনের পরিস্থিতি দেখে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। ‘

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকে আজকে পর্যন্ত কোন নির্বাচন শতভাগ ফেয়ার হয়েছে বলে কেউ বলতে পারবে না। সব নির্বাচনেই কম-বেশি হয়েছে। যখন যেই দল নির্বাচনে জিতে তখন তারা বলে নির্বাচন ফেয়ার হয়েছে এবং বাকিরা বলে নির্বাচন ফেয়ার হয়নি। আওয়ামী লীগ ও বিএনপি প্রমাণ করেছে যে, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলেও নির্বাচন ফেয়ার হয় না। জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকে আমরা বলছি, বর্তমান সিস্টেমে নির্বাচন ফেয়ার করা সম্ভব না। একমাত্র নির্বাচন সিস্টেম যদি পরিবর্তন করা হয়, যদি আনুপাতিক হারে নির্বাচনের ব্যবস্থা করা হয় তাহলেই শতভাগ ফেয়ার নির্বাচন করা সম্ভব। তবে আমরা চাই বেশিরভাগ নির্বাচন ফেয়ার হোক।’

জাতীয় পার্টি নির্বাচনমুখী দল উল্লেখ করে দলটির মহাসচিব বলেন,’এই পর্যন্ত যত নির্বাচন হয়েছে আমরা সব নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছি। আমরা বিশ্বাস করি নির্বাচনের কোন বিকল্প নাই। বর্তমান নির্বাচনী ব্যবস্থায় আপত্তি থাকা সত্ত্বেও আমরা অংশগ্রহণ করছি। গণতান্ত্রিক পদ্ধতিকে প্রতিষ্ঠিত করতেই আমরা এটা করি।’

নাঈম/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: