প্রচ্ছদ / সারাবিশ্ব / বিস্তারিত

ভরা সংসদে হাতুড়ির কোপে ভাঙলেন স্মার্টফোন!

   
প্রকাশিত: ১০:৫৩ অপরাহ্ণ, ১৪ অক্টোবর ২০২২

ছবি - সংগৃহীত

যেকোনো দেশের সংসদে আলোচনার সময় ডেপুটিরা মাঝে মাঝে তাদের সহকর্মীদের ওপর রেগে যান। তুরস্কের এমন একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। কিন্তু এখানে ডেপুটি কোনো অংশীদারের উপর তার রাগ প্রকাশ করেনি, বরং কথা বলার সময় হাতুড়ি দিয়ে তার সেল ফোনটি ভাঙেন।

জানা গেছে, বিরোধী রিপাবলিকান পিপলস পার্টির সদস্য বুরাক এরবে সরকার সমর্থিত একটি বিলের বিরোধিতা করেছেন। এই বিলের উদ্দেশ্য অনলাইনে ভুয়া খবর বন্ধ করা। এই আইনের অধীনে, সামাজিক নেটওয়ার্ক এবং ওয়েবসাইটগুলিকে অবশ্যই “বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়িয়ে দেওয়ার” সন্দেহভাজন ব্যবহারকারীদের যোগাযোগের বিশদ প্রকাশ করতে হবে এবং অভিযুক্তের জন্য তিন বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে৷

কিন্ত বুরাক এমন আইনে অসম্মতি জানায় এবং হাতুড়ি দিয়ে তার সেল ফোনটি ভেঙে দেয়। সিএইচপি এমপি বুরাক এরবে তার হাতুড়ি বের করার আগে বলেছিলেন, আমি আমার ভাইদের সম্বোধন করতে চাই যাদের বয়স ১৫, ১৬, ১৭ বছর এবং যারা ২০২৩ সালে তুরস্কের ভাগ্য নির্ধারণ করবে। আপনার শুধুমাত্র একটি স্বাধীনতা বাকি আছে। আপনার পকেটে ফোন, ইনস্টাগ্রাম, ইউটিউব, ফেসবুক। সংসদে এই আইন পাশ হলে এভাবেই আপনার ফোন ভাঙতে পারে।

সমালোচকরা বলছেন, বিলটি পাস হলে সংবাদপত্রের স্বাধীনতাকে ক্ষুণ্ন করবে এবং ব্যাপক সেন্সরশিপের দিকে নিয়ে যাবে। ২০১৬ সালে একটি ব্যর্থ অভ্যুত্থানের পর তুরস্কের বেশিরভাগ সংবাদপত্র এবং টিভি স্টেশনগুলি সরকারী কর্মকর্তা এবং তাদের ব্যবসায়িক সহযোগীদের নিয়ন্ত্রণে চলে আসে। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং ইন্টারনেট ভিত্তিক মিডিয়া অনেকাংশে নজরদারি থেকে মুক্ত রয়েছে। সূত্র – দ্য মিরর

আশরাফুল/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: