প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

মোঃ আনোয়ার হোসেন আকাশ

রাণীশংকৈল প্রতিনিধি

রাণীশংকৈলে আবাসিক এলাকায় করাতমিল, উচ্ছেদে ইউএনও বরাবরে অভিযোগ

   
প্রকাশিত: ৩:১৪ অপরাহ্ণ, ৯ নভেম্বর ২০২২

ছবি - প্রতিনিধি

ঠাকুরগাঁও রাণীশংকৈল পৌরশহরের আবাসিক এলাকার সন্ধারই গ্রামে সম্প্রতি একটি করাতমিল স্থাপন হয়েছে। মিলটি ৩২ হর্সের শ্যালো মেশিন দিয়ে চালানো হয়। এর বিকট শব্দে আশাপাশের বাসিন্দারা কঠিন শব্দ দুষনের মধ্যে রয়েছে দাবী করে ওই এলাকার বাসিন্দা খুরশিদ আলম শাওন মিলটি স্থায়ী বন্ধ ও উচ্ছেদের জন্য উপজেলা নির্বাহী নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে গতকাল বুধবার একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, রাণীশংকৈল পৌরসভা ৮নং ওয়ার্ড সন্ধারই গ্রামের অর্ন্তগত প্রধান সড়ক ঘেঁষা আবাসিক এলাকায় সন্ধারই সাতঘরিয়া এলাকার নজরুল ইসলামের ছেলে বাবুল ইসলাম জমি ভাড়া নিয়ে অবৈধভাবে করাত মিল স্থাপন করেছেন। মিল স্থাপনের পর হতেই পরিবেশ ও শব্দ দুষনসহ বিভিন্ন সমস্যায় ভুগছে আবাসিক এলাকার বাসিন্দারা। বিশেষ করে অভিযোগকারীর বাড়ীর সন্নিকটে করাতমিলটি হওয়ায় সবচেয়ে বেশি শব্দ ও পরিবেশ দুষনের মধ্যে রয়েছেন বলে তিনি অভিযোগে উল্লেখ্য করেন।

অভিযোগে আরো উল্লেখ্য করা হয়, মিল মালিক বাবুল ইসলামকে বারবার তাগাদা দেওয়া সত্বেও সে অবৈধ ক্ষমতার জোরে করাতমিলটি চালিয়ে যাচ্ছেন। এতে আবাসিক এলাকার শিক্ষার্থীরাসহ বাসিন্দারা অসহনীয় শব্দদূষণে পড়েছেন। করাতমিলটি স্থায়ী বন্ধসহ সেখান থেকে অপসারণের জন্য তিনি অভিযোগে জোর দাবী জানান। এ বিষয়ে করাতমিল মালিক বাবুল ইসলাম কোন কথা বলতে রাজি হননি।

উপজেলা বন কর্মকর্তা শাহাজাহান আলী মুঠোফোনে বলেন, বাবুল ইসলামকে অবৈধভাবে মিল স্থাপনের জন্য ইতিমধ্যে একবার ভাম্যমাণ আদালতে জরিমানা করা হয়েছে। এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, ওই করাতমিলটির কোন অনুমোদন নেই। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহেল সুলতান জুলকার নাইন কবির বলেন, একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আশরাফুল/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: