প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

জামাতে নামাজ পড়ে সাইকেল উপহার পেলেন ১২ শিশু-কিশোর

   
প্রকাশিত: ১১:১১ অপরাহ্ণ, ১০ নভেম্বর ২০২২

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে শিশু-কিশোরদের নামাজের প্রতি আকৃষ্ট করতে পুরস্কারের ঘোষণা দেন মসজিদ কমিটি। আর সেই ঘোষণায় আকৃষ্ট হয়ে টানা ৪০ দিন জামাতে নামাজ আদায় করে পুরস্কার জিতে নিয়েছে চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার ১২ জন শিশু-কিশোর। আজ বৃহস্পতিবার ( ১০ নভেম্বর) সকালে উপজেলার ধুম ইউনিয়নের শুক্রবারইয়ারহাট কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের সামনে তাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কয়েকমাস আগে শুক্রবারইয়ারহাট কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ কমিটি ঘোষণা দিয়েছিলেন যে, ১৫ বছরের কম বয়সের শিশু কিশোররা যদি একটানা ৪০ দিন পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ জামাতের সঙ্গে আদায় করে, তাহলে তাদের একটি করে বাইসাইকেল পুরস্কার দেওয়া হবে। সে ঘোষণায় উৎসাহিত হয়ে এলাকার অনেক শিশু কিশোরই নামাজ আদায় শুরু করে। টানা ৪০ দিন নিয়মিত জামাতে নামাজ পড়েছেন এমন ১২ জনের হাতে বৃহস্পতিবার সেই পুরষ্কার তুলে দেওয়া হয়।

পরবর্তীতে আজ বৃহস্পতিবার শুক্রবারইয়ার হাট কেন্দ্রীয় মসজিদ মাদরাসা ও ঈদগাঁ কমপ্লেক্সের আজিজ মিছির ভূঁইয়া ভবনে নুরানি একাডেমির নতুন ক্লাস উদ্বোধন এবং শিশু কিশোরদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি নূর নবী ভূঁইয়া, সম্পাদক নুরুল কাদের হোসাইনি, উপদেষ্টা মেজবাউল হক মানিক, মাদরাসা পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক হাজী শামসুদ্দিন ভূঁইয়া ও সদস্য সচিব আজমুল হোসেন ভূঁইয়া।

এই পুরষ্কার পাওয়া শিশু কিশোরেরা হলেন,  শাহরিয়ার ভূঁইয়া, মেহরাজ উদ্দিন, আব্দুল্লাহ আল তাহমিদ, জামশেদ আলম, নুরুন্নবী সিফাত, ফয়সাল, জিহাদ, তামিম, শারাফাত, প্রান্ত, কাশফি উদ্দিন ও মাইনুল হাসান।পুরস্কারপ্রাপ্ত মেহরাজ উদ্দিন বলেন, বাইসাইকেল পুরস্কার পেয়ে আমার অনেক আনন্দ লাগছে। ৪০ দিন টানা জামাতে নামাজ আদায়ের ঘোষণা দেওয়ার পর আমি প্রতিজ্ঞা করেছিলাম নামাজ ছাড়া যাবে না। আলহামদুলিল্লাহ টানা ৪০ দিন জামাতে নামাজ আদায় করে খুব ভালো লাগছে। ভবিষ্যতেও সব সময় নিয়মিত জামাতে নামাজ আদায় করবো ইনশাআল্লাহ।

মসজিদ কমিটির সভাপতি নূর নবী ভূঁইয়া জানান, ঘোষণার পর থেকে এলাকার অনেক শিশু কিশোর মসজিদে নিয়মিত পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ জামাতের সঙ্গে আদায় করা শুরু করে। যদি কেউ কোনো ওয়াক্তে অনুপস্থিত থাকতো তখন তার গণনা বন্ধ করে দেওয়া হতো। এভাবে নিয়মিত যাচাই-বাছাই ও হাজিরার ভিত্তিতে সর্বশেষ ১২ জন বিজয়ী হয়েছে। ভবিষ্যতেও এমন মহৎ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

রেজানুল/সা.এ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: