প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

পঞ্চগড়ে নৌকাডুবির ৪৭ দিন পর মিললো জয়ার নিথর দেহ

   
প্রকাশিত: ৮:৪৮ অপরাহ্ণ, ১১ নভেম্বর ২০২২

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় করোতোয়া নদীতে নৌকা ডুবির ঘটনায় নিখোঁজের দীর্ঘ ৪৭ দিন পর আরও এক  শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত শিশুর নাম জয়া রানী (৪)।আজ শুক্রবার (১১ নভেম্বর) বিকেলে বোদা উপজেলার মাড়েয়া ইউনিয়নের আউলিয়ার ঘাটের করতোয়া নদী থেকে তার অর্ধগলিত মরদেহটি উদ্ধার করেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। এ নিয়ে এ ঘটনায় মরদেহ উদ্ধারের সংখ্যা দাঁড়াল ৭১ জন।

নিহত শিশু জোলর সদর উপজেলার কামাত কাজলদিঘি ইউনিয়নের ঘাটিয়ার পাড়া এলাকার ধীরেন্দ্রনাথ রায়ের মেয়ে।  শিশুর মরদেহ উদ্ধারের তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন মাড়েয়া বামনহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু আনছার মো. রেজাউল করিম। তিনি জানান, ‘ফায়ার সার্ভিস, পুলিশ ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) উপস্থিতিতে বাবা–মায়ের কাছে মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে।’

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আউলিয়ার ঘাটের ঘটনাস্থলে পাশেই শ্রমিকেরা করতোয়া নদী থেকে বালি উত্তোলন করার সময় উৎকট গন্ধ পান। বালু তোলার সময় অর্ধগলিত মরদেহটি বেরিয়ে আসে। বিকেল ৩টার দিকে শ্রমিকেরা বালুর নিচ থেকে মরদেহটি বের করে ইউনিয়ন পরিষদ ও প্রশাসনকে খবর দেন। পরে প্রশাসন ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করেন।  শিশুর মরদেহ উদ্ধারের বিষয়ে বোদা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বহ্নি শিখা আশা বলেন, ‘নৌকা ডুবির ঘটনায় নিখোঁজ শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বাবা–মা ও স্বজনেরা শনাক্ত করলে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও জনপ্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে মরদেহটি তাঁদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, এর আগে গত ২৫ সেপ্টেম্বর জেলার বোদা উপজেলার মাড়েয়া ইউনিয়নের করতোয়া নদীর আউলিয়ার ঘাটে শতাধিক যাত্রী নিয়ে নৌকাডুবির ঘটনাটি ঘটে। শ্যালো ইঞ্জিন চালিত ওই নৌকায় দুর্গোৎসবের মহালয়া অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বড়শশী ইউনিয়নের বদেশ্বরী মন্দিরের দিকে যাচ্ছিলেন হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা। ঘাট থেকে নৌকাটি কিছু দূর যাওয়ার পর দুলতে শুরু করে। একপর্যায়ে নৌকাটি ডুবে যায়। এ ঘটনায় ৭৩ জন নিখোঁজ হন। টানা কয়েক দিন উদ্ধার অভিযান চালিয়ে ৬৯ জনের মরদেহ উদ্ধার করেন উদ্ধারকর্মীরা। সর্বশেষ ঘটনার ৪৫ দিনের মাথায় গত বুধবার (৯ নভেম্বর) ভূপেন্দ্রনাথ রায় পানিয়ার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এখনো নিখোঁজ রয়েছেন সুরেন নামের এক ব্যক্তি।

রেজানুল/সা.এ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: