প্রচ্ছদ / ক্যাম্পাস / বিস্তারিত

তুরস্কে ভয়াবহ বিস্ফোরণ, কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই সন্দেহভাজন গ্রেফতার

   
প্রকাশিত: ১১:৪৮ পূর্বাহ্ণ, ১৪ নভেম্বর ২০২২

ছবি: সংগৃহীত

তুরস্কের রাজধানী ইস্তাম্বুলের ইস্তিকলাল অ্যাভিনিউয়ে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনায় এক সন্দেহভাজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাৎক্ষণকিভাবে তার নাম-পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি। তবে তিনি একজন নারী হতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। বর্তমানে তাকে জিজ্ঞাবাসাদ করা হচ্ছে। তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুলেমান সয়লু এসব তথ্য জানিয়েছেন।

এই ঘটনাকে জঙ্গি তৎপরতার অংশ মনে করছে তুরস্ক। এজন্য জঙ্গিগোষ্ঠী কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টিকে (পিকেকে) দায়ী করছে দেশটি। উল্লেখ্য, এই হামলায় এখন পর্যন্ত ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। আহত হয়েছে অন্তত ৮১ জন। ব্লুমবার্গের এক রিপোর্ট অনুযায়ী, বিস্ফোরণের কিছুক্ষণ আগেই এক নারীকে একটি পার্সেল রেখে দিয়ে সেখান থেকে পালাতে দেখা গেছে।

দেশটির বিচারমন্ত্রী বেকির বোজদাগ তুর্কি গণমাধ্যমকে বলেন, একজন নারী ৪০ মিনিটেরও বেশি সময় ধরে ঘটনাস্থলের একটি বেঞ্চে বসে ছিলেন। এরপর বিস্ফোরণ ঘটার কয়েক মিনিট আগে তিনি ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন।

এদিকে, হামলার পরই বিস্ফোরণ সংক্রান্ত যেকোনও ভিডিও সম্প্রচারের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয় তুরস্কে। সোশ্যাল মিডিয়াতেও এই নিয়ে আলোচনার ওপর নজরদারি চালানো হচ্ছিল প্রশাসনের পক্ষ থেকে। জানা গেছে, রবিবার স্থানীয় সময় বিকাল ৪টা ২০ মিনিট নাগাদ বিস্ফোরণটি ঘটে। ভিডিও ফুটেজে দেখা ড়েছে, বিস্ফোরণের সময় ইস্তানবুল শহরের কেন্দ্রস্থলে রাস্তাটি ভিড়ে ঠাসা ছিল। বিস্ফোরণের পরই ব্যস্ত এলাকাটি থেকে লোকজনকে পালাতে শুরু করে।

অনেককেই অবশ্য মাটিতে পড়ে থাকতে দেখা যায়। একটি বিশাল গহ্বর তৈরি হয়েছিল বিস্ফোরণের কারণে। পুলিশ গোটা এলাকা ঘিরে ফেলে। বিস্ফোরণের পরই রাস্তাটি বন্ধ করে দেওয়া হয়। রাস্তার আশপাশে থাকা দোকানগুলোও বন্ধ করে দেওয়া হয়। সূত্র: বিবিসি, আনাদোলু এজেন্সি, আল জাজিরা।

ইমদাদ/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: