প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

শিপন সিকদার

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় দুই স্কুলছাত্রকে তুলে নিয়ে মারধর

   
প্রকাশিত: ১১:১৮ অপরাহ্ণ, ১৬ নভেম্বর ২০২২

ফতুল্লার দাপায় ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় রবিউল হাসান ও রাতিন নামক দুই স্কুল ছাত্র কে স্কুল গেইট থেকে তুলে নিয়ে বেদম মারপিট করার ঘটনা ঘটেছে। আহত দুই ছাত্র ফতুল্লা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্র। এ ঘটনায় স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীসহ স্থানীয়দের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার (১৬ নভেম্বর) বিকেলে ফতুল্লার দাপা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় এলাকায়।

এ ঘটনায় আহত স্কুলছাত্র রবিউল হাসানের বড় ভাই সোহাগ বাদী হয়ে শামীম বাহিনীর প্রধান শামীম সহ ৫ জনের নাম উল্লেখ্য সহ অজ্ঞাতনামা আরো ১০-১২ জন কে আসামী করে ফতুল্লা মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। আহত স্কুলছাত্র রবিউলের মুখে ছয়টি সেলাই করা হয়েছে।

জানা গেছে, শামীম বাহিনীর প্রধান শামীম, মুন্না, বাইতুল,ইমন,নয়নসহ বেশ কিছু বখাটে দীর্ঘদিন ধরে স্কুলের ছাত্রীদের সঙ্গে অশোভন আচরণ, অকারণে মুঠোফোনে ছবি তোলা, পথরোধ করাসহ নানাভাবে বিরক্ত করে আসছিলো। এতে চরম বিরক্ত হয়ে পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী রবিউল হাসান ও রাতিনসহ বেশ কয়েকজন এর প্রতিবাদ করে। এর প্রেক্ষিতে বুধবার (১৬ নভেম্বর) বিকেল ৫ টার দিকে কোচিং শেষ করে বাসায় যাবার পথে স্কুলের পূর্ব গেইটে আসা মাত্র তাদেরকে একটি মাঠে তুলে নিয়ে যায় শামীম সহ অপর সন্ত্রাসীরা। সেখানে নিয়ে গিয়ে কাঠের টুকরো দিয়ে নির্মমভাবে এলোপাতাড়ি ভাবে পেটায়। এতে শরীরের মুখমণ্ডলসহ একাধিক স্থানে রক্তাক্ত জখম হয়। ঘটনার সংবাদ ছড়িয়ে পরলে স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে ও অভিভাবক মহলে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। তারা অপরাধীদের শাস্তির দাবী করেছেন।

শাকিল/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: