প্রচ্ছদ / রাজনীতি / বিস্তারিত

এটা চূড়ান্ত আন্দোলন নয়, অথচ আ.লীগ নস্যাৎ করার পাঁয়তারা করছে: ফখরুল

   
প্রকাশিত: ৯:২৭ অপরাহ্ণ, ১৭ নভেম্বর ২০২২

ছবি - সংগৃহীত

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অভিযোগ করে বলেছেন, ঢাকায় বিএনপির বিভাগীয় বৈঠককে ‘বানচাল’ করতে ‘হামলা, মামলা, গ্রেফতার’সহ সব ধরনের তৎপরতা অব্যাহত রেখেছে ক্ষমতাসীন দল। তিনি বলেন, আমাদের পরিষ্কার কথা- ঢাকার সমাবেশ হচ্ছে বিভাগীয় সমাবেশের সর্বশেষ সমাবেশ। এখান থেকে আমরা পরবর্তীতে আন্দোলন কর্মসূচি নির্ধারণে যাব। এটা চূড়ান্ত আন্দোলন কর্মসূচি নয়। অথচ আওয়ামী লীগ ইচ্ছাকৃতভাবে তা নস্যাৎ করার পাঁয়তারা করছে।

বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) গুলশানে দলের চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব অভিযোগ করেন। বিএনপির এই শীর্ষ নেতা বলেন, ‘সামগ্রিকভাবে এমন একটা আবহাওয়া তৈরি করছে ঢাকার বিভাগীয় সমাবেশকে কেন্দ্র করে, যেন মনে হচ্ছে যে, ১০ তারিখে (১০ ডিসেম্বর) ঢাকায় একটা যুদ্ধ হবে।’

জ্বালানি তেলসহ নিত্যপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি, বিএনপির আন্দোলনে পাঁচ নেতাকর্মীর মৃত্যু ও দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি, নির্দলীয় ও নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে সংসদ নির্বাচনের’ দাবিতে সব বিভাগীয় শহরে এ সমাবেশ করছে বিএনপি। ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় দলটির শেষ সমাবেশের কথা রয়েছে।

এ সময় বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমরা জ্বালানি তেলসহ নিত্যপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে গণতান্ত্রিক অধিকার প্রতিষ্ঠার দাবিতে শান্তিপূর্ণভাবে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে আসছি। গত ১২ অক্টোবর ২০২২ থেকে বিভাগীয় পর্যায়ে একই দাবিতে গণসমাবেশ কর্মসূচি পালন করে আসছি। এ কর্মসূচিগুলো বাধাগ্রস্ত করতে সরকার, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাদের দলীয় সন্ত্রাসীদের দ্বারা বিরোধী মতের নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষকে হত্যা, হামলা করে আহত, গ্রেফতারসহ সব প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, মুন্সীগঞ্জে আমাদের নিরপরাধ মানুষের ওপর হামলা করে এবং ঢাকার জনসভা বানচাল করতে শহিদুল ইসলাম শাওনকে হত্যা করে বিএনপি নেতাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলার সাজানো হয়েছে। সেই মামলায় আপনারা জানেন যে, আমাদের কেন্দ্রীয় সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক মুন্সীগঞ্জ জেলার সদস্য সচিব কামরুজ্জামান রতনকে আটক করে রাখা হয়েছে।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি রফিক হাওলাদার, যুবদলের সাবেক সহ-সভাপতি আলী আকবর চুন্নুসহ বিভিন্ন থানায় ইতোমধ্যে ৫০ জন নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে। গতকাল (বুধবার) নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে আওয়ামী সন্ত্রাসীরা বিএনপির নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালিয়ে ৫০ জন নেতাকর্মীকে আহত করেছে।

আশরাফুল/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: