প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

হারুন অর রশিদ

পঞ্চগড় প্রতিনিধি

পঞ্চগড়ে গুনগত মানের চা উৎপাদন নিয়ে উস্মুক্ত আলোচনা

   
প্রকাশিত: ৯:২৩ অপরাহ্ণ, ২১ নভেম্বর ২০২২

সম্প্রতি নিলাম বাজারে পঞ্চগড়ের চায়ের দাম নিম্নমুখী হয়েছে। এতে করে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে চা চাষী বাগান মালিক এবং চা প্রক্রিয়াজাতকরন কারখানাগুলো। চায়ের বর্তমান সংকট নিরসনে পঞ্চগড়ের চা চাষী, বাগান মালিক এবং চা পাতা প্রক্রিয়াজাতকরন কারখানাগুলোর মালিকদের নিয়ে পঞ্চগড়ে উন্মুক্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার দুপুরে পঞ্চগড় সরকারী অডিটরিয়ামে সলিডারিডেট এশিয়া নেটওয়ার্ক ও ইকো সোশ্যাল ডেভলপমেন্ট অর্গানাইজেশন (ইএসডিও)’র যৌথভাবে এই উন্মুক্ত আলোচনা সভার আয়োজন করেন।

সভায় ক্ষুদ্র চা চাষী চা বাগান মালিকদের প্রতিনিধি এবং চা কারখানার মালিকগন আলাদা আলাদাভাবে বিভিন্ন মতামত তুলে ধরেন। একপর্যায়ে বিষদ আলোচনায় গুনগত মানসম্পন্ন চা উৎপাদনে, চাষীদের ভূমিকা চায়ের প্রুনিং চা সংগ্রহের উন্নত পদ্ধতি ব্যবহার করে পঞ্চগড়ের চা শিল্পকে সমৃদ্ধশালী করতে সকলেই ঐক্যমত পোষন করেন। পরে অতিথিগণ সকলের মতামতের ভিত্তিতে আগামি দিনে পঞ্চগড়ে চা শিল্প উন্নয়নে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার নির্দেশনা প্রদান করেন। এ সময় ক্ষুদ্র চা চাষী রফিকুল ইসলাম, মোস্তফা কামাল রাজু হিমালয় টি এর সত্তাধিকারী ও উদ্যোক্তা ফোরাত জাহান সাথী এবং মরগেন চা ফ্যাক্টরির মালিক নাওয়াজেশ আলী চিশতি মতামত তুলে ধরেন।

উপসচিব আজাদ জাহান বলেন প্রথমে পঞ্চগড়ের চা শিল্পের সংকটের মূল সমস্যা চিহ্নিত করতে হবে। একদিকে চা চাষীরা যেমন কোনরকমে চা পাতা সংগ্রহ চালিয়ে দিতে চায় অন্যদিকে ফ্যাক্টরি মালিকরাও সেই সুযোগ নিচ্ছেন। উপসচিব বলেন সবার আগে আমাদের চা চাষীদের বাঁচাতে হবে। সরকার বার বার চা চাষী বাগান মালিক সহ সংশ্লিস্টদের নিয়ে সভা করে করনীয় শির্ষক বিষদ আলোচনা করে ভাল মানের চা উৎপাদনে চেস্টা করে যাচ্ছে।

সভায় সলিডারিডেড বাংলাদেশ’র ম্যানেজার সেলিম রেজা খানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপসচিব ও পঞ্চগড়ের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আজাদ জাহান, বিশেষ অতিথি হিসেবে ইএসডিও’র নির্বাহি পরিচালক ড. মো. শহিদুজ্জামান, জেলা প্রশাসনের নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট ফরহাদ আহমেদ এবং পঞ্চগড় সদর থানার ওসি তদন্ত দুলালউদ্দিন বক্তব্য প্রদান করেন।

শাকিল/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: