প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

সাংবাদিকের কোমরে রশি, ওসি প্রত্যাহারের দাবিতে ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম

   
প্রকাশিত: ৭:৫৪ অপরাহ্ণ, ২৩ নভেম্বর ২০২২

কামরুল হাসান নিরব, ফেনী থেকে: সাংবাদিককে গ্রেফতার করে কোমরে রশি বেঁধে আদালতে তোলার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন করেছে ফেনীতে কর্মরত সাংবাদিকরা।

বুধবার (২৩ নভেম্বর) দুপুরে ফেনী শহরের ট্রাংক রোডে আয়োজিত মানববন্ধনে দাগনভূঞাঁ থানার ওসি হাসান ইমামসহ অভিযুক্ত সব পুলিশের প্রত্যাহার দাবি করেন ফেনীর সাংবাদিকরা। ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটামও দিয়েছেন তারা।

তারা বলেন, ২৪ ঘন্টার মধ্যে যদি অভিযুক্ত পুলিশদের প্রত্যাহার করা না হয় তবে পুলিশের সব ধরনের নিউজ বর্জন করবেন সাংবাদিকরা। সাংবাদিক এবিএম নিজাম উদ্দিনের সঞ্চালনায় মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলার জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক আবু তাহের, শাহজালাল রতন, মোহাম্মদ আবু তাহের ভূঞাঁ, মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন, আবদুর রহিম, আজাদ মালদার, জসিম মাহমুদ।

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন এনএন জীবন, নজির আহম্মদ রতন, নাজমুল হক শামীম, আতিয়ার সজল, আরিফুর রহমান, মাইনুল রাসেল, নজরুল ইসলাম রনজু, দিদারুল আলম তানভীর চৌধুরীসহ জেলার কর্মরত সাংবাদিকরা।

সাংবাদিক ইউসুফ আলীকে বিশেষ ক্ষমতা আইনের একটি মামলায় সোমবার পুলিশ গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করে।
গ্রেফতার ইউসুফ ‘দৈনিক অধিকার’এর ফেনী ব্যুরো চীফ ও অনলাইন পোর্টাল ‘ফেনী রিপোর্ট’ এর সম্পাদক। তিনি দাগনভূঞাঁ উপজেলার পূর্বচন্দ্রপুর ইউনিয়নের গজারিয়া গ্রামের বাসিন্দা।

তার মামলার আইনজীবী এম. শাহজাহান সাজু বলেন, ২০১৯ সালের আলোচিত নুসরাত হত্যাকাণ্ড মামলায় কর্তব্যে অবহেলার দায়ে প্রত্যাহার হওয়া পুলিশ সুপার এসএম জাহাঙ্গীর আলম সরকারের রোষানলের শিকার ইউসুফ আলী। ওই সময়ে গণমাধ্যমে জাহাঙ্গীর আলম ব্যাপক সমালোচিত হয়ে ফেনী থেকে প্রত্যাহার হয়ে পুলিশ সদর দপ্তরে এখনবধি সংযুক্ত রয়েছেন। ফেনী থেকে যাওয়ার আগে তিনি জেদ মেটাতে ৪ জন সাংবাদিককে জেলার বিভিন্ন থানায় বেশ কিছু মামলার চার্জশীটে যুক্ত করে দেন।

এসব মামলার এজাহারে তাদের কারোই নাম ছিল না। পরবর্তীতে সবকটি মামলায় তারা জামিন লাভ করে আদালতে হাজিরা দিয়ে আসছিলেন। ছাগলনাইয়া থানায় দায়ের করা একটি মামলায় ভুলক্রমে হাজিরা দিতে না পারায় ইউসুফ আলীর জামিন বাতিল হয়। পুলিশ সোমবার রাত দেড়টার দিকে তাকে ঘুম থেকে তুলে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।

এদিকে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত বুধবার এসএম ইউসুফ আলীর মামলায় জামিন আবেদন মঞ্জুর করেছেন৷ বেলা ৪:৩০ মিনিটে ফেনী জেলা কারাগার হতে ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়ে তাকে সঙ্গে করে নিয়ে আসেন সাংবাদিকরা। এসময় তারা মোটর সাইকেল শোভাযাত্রা মাধ্যমে শহরে প্রবেশ করেন। সাংবাদিক ইউসুফ আলীকে গভীর রাতে গ্রেফতার এবং কোমরে রশি বাঁধাই করার পর থেকে শহরে সাংবাদিকদের মধ্যে গনঅসন্তোষের সৃষ্টি হয়।

মানববন্ধন বন্ধ করতে দাগনভূঁইয়া থানার ওসি হাসান ইমাম কয়েকদফা বৈঠকের চেষ্টা চালান। রাতে ফেনী এসে ফেনীর সিনিয়র সাংবাদিকদের নিকট ক্ষমা প্রার্থনা করেন। ইতিপূর্বে এই হাসান ইমাম চট্টগ্রামের কোতোয়ালি থানায় কর্মরত ছিলেন। সেখানে তার অপকর্মের পাল্লা ভারী হলে ফেনী প্রেরন করা হয়। আদালত ও প্রশাসন অবস্থা বেগতিক লক্ষ্য করে সাংবাদিক ইউসুফ আলীকে দ্রুত জামিন দিয়ে বের হওয়ার সুযোগ করে দেন।

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: