প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

কুমিল্লায় টাউন হল মাঠে বিএনপির ও সাক্কুর পৃথক জুম্মার জামাত

   
প্রকাশিত: ৪:১৫ অপরাহ্ণ, ২৫ নভেম্বর ২০২২

কুমিল্লা টাউন হল মাঠে শুক্রবার পৃথক জামাতে জুম্মার নামাজ আদায় করেছেন বিএনপির নেতাকর্মীরা। একই মাঠে ১০ মিনিটের ব্যবধানে দুটি জামাত হয়েছে।  যেখানে মাঠের পূর্বপাশে প্যান্ডেলের নিচে একটি জামাতে অংশ নেন কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র ও বহিষ্কৃত বিএনপি নেতা মনিরুল হক সাক্কু। ১টা ৫ মিনিটের জামাতে নামাজ আদায় করেন তারা।

অন্যদিকে  মাঠের পশ্চিম পাশের ত্রিপলের নিচে এক জামাতে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশারফ হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক মিয়া, জেলা বিএনপির আহ্বায়ক হাজী আমিন উর রশিদ ইয়াছিনসহ দলের জেলা, মহানগরসহ চাঁদপুর ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে আসা নেতাকর্মীরা অংশ নেন। ১টা ১৫ মিনিটের জামাতে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতারাসহ কর্মীরা নামাজ আদায় করেন।

একই মাঠে কেন পৃথক জামাতে জুম্মার নামাজ আদায় করলেন এ নিয়ে চলে নানা গুঞ্জন। কেউ কেউ বলেছেন সাবেক মেয়র সাক্কু সমাবেশ সফল করতে শুরু থেকে কাজ করছেন, নেতাকর্মীদের থাকা ও খাওয়ার ব্যবস্থা করেছেন। তিনি যেহেতু দল থেকে বহিষ্কৃত, তাই ইচ্ছে করেই দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে নামাজ পড়তে আসেননি।

তবে মনিরুল হক সাক্কু এ বিষয়ে বলেন, ‘তাদের সঙ্গে নামাজ পড়তে আমাকে কেউ বলেনি। আমি আগেই এখানে নামাজের ব্যবস্থা করেছিলাম। যেহেতু আমি বহিষ্কৃত, এজন্য আমি আলাদাভাবে প্রচারণা চালাচ্ছি।’

অন্যদিকে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক মিয়া বলেন, ‘নামাজ তো সবার জন্য উন্মুক্ত, এখানে আসতে সাবেক মেয়র সাক্কুকে তো কেউ নিষেধ করেনি, তিনি কেন আমাদের সঙ্গে না এসে পৃথক জামাতে নামাজ আদায় করেছেন তা তিনিই ভালো বলতে পারবেন। নামাজের সঙ্গে রাজনীতি টেনে আনা ঠিক নয়।’

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচন, নিত্যপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে, দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনাসহ বেশকিছু দাবি সামনে রেখে দেশজুড়ে গণসমাবেশ করছে বিএনপি। আগামী ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় গণসমাবেশ করার কথা রয়েছে। এর আগে বিভাগীয় শহরগুলোতে সমাবেশ আয়োজন করছে দলটি। এরই ধারাবাহিকতায় বরিশাল, খুলনা, রংপুরসহ সব বিভাগে সমাবেশ করছে। এরই অংশ হিসেবে ফরিদপুর ও কুমিল্লায়ও গণসমাবেশ ডাকে বিএনপি।

না.হাসান/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: