প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

ঋণের বোঝা পরিশোধ করতে না পারায় ১২ কৃষককে জেল

   
প্রকাশিত: ১০:৫৭ অপরাহ্ণ, ২৫ নভেম্বর ২০২২

ফারাবি বিন সাকিব, ঈশ্বরদী (পাবনা) থেকে: ঋণ নিয়ে ফেরত না দিতে পারায় ঈশ্বরদীতে ১২ প্রান্তিক কৃষককে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) বিকেলে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সুমাইয়া বেগম তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- উপজেলার ছলিমপুর ইউনিয়নের ভাড়ইমারি গ্রামের মৃত সোবহান মণ্ডলের ছেলে আবদুল গণি মণ্ডল (৪৭), মৃত আয়েজ উদ্দিনের ছেলে সামাদ প্রামাণিক (৪০), শুকুর প্রামাণিকের ছেলে আলম প্রামাণিক (৫৩), মনিরুলের ছেলে মাহাতাব মণ্ডল (৪৭), কামাল প্রামাণিকের ছেলে শামীম হোসেন (৪২), মৃত সামির উদ্দিনের ছেলে নূর বক্স (৪৫), মৃত আখের উদ্দিনের ছেলে মোহাম্মদ আতিয়ার রহমান (৫২) রিয়াজ উদ্দিনের ছেলে মোহাম্মদ আকরাম (৪৮), লালু খাঁর ছেলে মোহাম্মদ রজব আলী (৩৮) মৃত কোরবান

ঋণ নিয়ে ফেরত না দেওয়ায় পাবনার ঈশ্বরদীতে ১২ প্রান্তিক কৃষককে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) বিকেলে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সুমাইয়া বেগম তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, সমবায় ব্যাংক থেকে ৩৭ জন কৃষক ২৫-৩০ হাজার টাকা করে ঋণ নিয়েছিলেন। এই ঋণ সুদসহ ফেরত না দেওয়ায় ২০২১ সালে তাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়। পরে আদালত পরোয়ানা জারি করলে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ১২ জনকে গ্রেফতার করে।কৃষক উন্নয়ন সোসাইটির সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান ময়েজ বলেন, যে অভিযোগে কৃষকদের গ্রেফতার করা হয়েছে এটি সঠিক নয়। ঋণের টাকা কৃষকরা বহু আগে পরিশোধ করেছেন। পরিশোধের রশিদ তাদের কাছে আছে।রশিদ থাকা সত্ত্বেও কিভাবে তাদের গ্রেফতার করে কারাগারে প্রেরণ করা হলো আমার জানা নেই।

তিনি আরও জানান, দেশে হাজার কোটি টাকা ঋণ নিয়ে অনেকে খেলাপি হয়ে আছেন। কিন্তু তাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি আদেশ জারি হয় না। তারা গ্রেফতার হয় না। অথচ কৃষকের সামান্য কয়েক হাজার টাকা ঋণ পরিশোধের পরও মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে। কৃষকদের অকারণে গ্রেফতার ও কারাগারে পাঠানো হলো।কৃষক উন্নয়ন সোসাইটির পক্ষ থেকে আমরা তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি।

ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অরবিন্দ সরকার বলেন, গ্রেফতার কৃষকদের দাবি, সব ঋণের টাকা তারা পরিশোধ করেছেন। এরপর কেন মামলা হলো সেটি তারা জানেন না।

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: