প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

তিনদিন আগেই বিয়ে, সড়কে নিথর যুবক

   
প্রকাশিত: ১১:২২ পূর্বাহ্ণ, ২৬ নভেম্বর ২০২২

বাবা-মায়ের স্বপ্ন পূরণের আশায় প্রায় এক যুগ আগে দুবাইয়ে পাড়ি জমান কিরণ মিয়া (২৮)। ধীরে ধীরে নিজের স্বপ্ন পূরণ করতে থাকেন। মনের মতো দৃষ্টিনন্দন ঘর তৈরি করেন। দীর্ঘদিন পর পাঁচ মাসের ছুটি নিয়ে ২০ দিন আগে বাড়ি ফেরেন। গত ২০ নভেম্বর জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনে বিয়ে করেন।কিন্তু গত বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) সড়কে প্রাণ গেল তাঁর।

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া পৌর এলাকার সৈয়দগাঁও গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। নিহত যুবক ওই গ্রামের ফরিদ মিয়ার ছেলে। তিনি দীর্ঘদিন ধরে দুবাই চাকরি করতেন। চার ভাই-বোনের মধ্যে সবার বড়।পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পরিবারের আর্থিক সচ্ছলতা ফেরাতে প্রায় ১২ বছর আগে দুবাই পাড়ি জমান কিরণ। গত ২০ নভেম্বর পাঁচ মাসের ছুটি নিয়ে দেশে আসেন। এর কয়েক দিন পর বিয়ে করেন। বিয়ের তিন দিন পর গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে মোটরসাইকেল নিয়ে বাড়ি থেকে মঠখোলা বাজারের দিকে যাচ্ছিলেন তিনি।

পরবর্তীতে পাকুন্দিয়া-মঠখোলা সড়কের সৈয়দগাঁও জামে মসজিদ এলাকা সংলগ্ন রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা একটি ট্রাক্টরের সঙ্গে সংঘর্ষ হয় মোটরসাইকেলটির। কিরণ মিয়া ছিটকে গিয়ে সড়কের পাশের একটি গাছের সঙ্গে ধাক্কা খান। এতে মাথায় ও অণ্ডকোষে মারাত্মক আঘাত পান। স্থানীয়রা দ্রুত কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে যান। অবস্থার অবনতি হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। সেখানে থেকে তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে রাত ৯টার দিকে মারা যান কিরণ মিয়া। শুক্রবার জুমার নামাজের পর সৈয়দগাঁও আদু পাগলার মাজার সংলগ্ন মাঠে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

কিরণ মিয়ার চাচা মোস্তফা মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, ‘মর্মান্তিক এ ঘটনায় আমরা সবাই শোকাহত। সে দীর্ঘদিন প্রবাসে ছিল। দেশে এসে বিয়েও করে। এর তিন দিনের মাথায় এমন ঘটনায় আমরা সবাই বাকরুদ্ধ। পরিবার গভীরভাবে শোকাহত।’

রেজানুল/সা.এ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: