প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

কুষ্টিয়ায় চ্যালেঞ্জের উপর হামলা, থানায় ১৬ জনের নামে মামলা

   
প্রকাশিত: ১২:২৯ অপরাহ্ণ, ২৬ নভেম্বর ২০২২

ওয়ালিদুজ্জামান, শুভ (কুষ্টিয়া) থেকে: কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগর সাধারন সম্পাদক শেখ হাফিজ চ্যালেঞ্জের উপরে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় ১৬ দুর্বৃত্তকে আসামী করে একটি মামলা হয়েছে। ঘটনার ৭২ ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও এখনও কেউ গ্রেফতার না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছে জেলা আওয়ামীলীগ ও ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ। ছাত্রলীগ সেক্রেটারীর দাবি হামলাকারীরা চিহ্নিত সন্ত্রাসী, মাদক ব্যবসায়ী ও একাধিক মামলার আসামী। ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক শেখ হাফিজ চ্যালেঞ্জ দাবি করেন, হামলাকারীরা সবাই প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ভাবে প্রতিক্রিয়াশীল গোষ্ঠির সাথে জড়িত এবং আওয়ামী লীগের ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন করতেই অনুপ্রবেশ করেছে।

মামলার বাদী জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল হাফিজ ওরফে শেখ হাফিজ চ্যালেঞ্জ এজাহারে উল্লেখ করেছেন, কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থেকে এজাহারনামীয় আসামী ১. হাসিব কোরাইশি (৩২), পিতা- আনিস কোরাইশি, ২. শেখ সজিব (২৭), পিতা মৃত মিলন, ৩. মীর অভি (২৬), পিতা- বকুল, ৪. অনিক আহমেদ (২৫), পিতা- দলিল, ৫. ফেরদৌস মাহমুদ অন্তর (২৮), পিতা- গডন, ৬. নাজমুল শাকিব (২৩), পিতা- মোঃ চুন্নু, ৭. মোঃ রাতুল (২৪), পিতা- মুসা, ৮. ফারদিন (২৪), পিতা অজ্ঞাত, ৯. মোঃ জীবন (২২), পিতা- অজ্ঞাত, ১০. মোঃ রাজন (৩২), পিতা- লাবু কসাই, ১১. মোঃ মনা (২৮), পিতা- কালি রহিম, ১২. প্রত্যয় মাহমুদ (২২), পিতা- অজ্ঞাত, ১৩. মোঃ মানিক (৩২), পিতা- সলেমান কসাই, ১৪. মোঃ সোভন (২৬), পিতা- টাককু, ১৫. মোঃ রনি ইসলাম (২৬), পিতা- রাব্বি, ১৬. মোঃ হারুন ফয়সাল (২৬), পিতা- অজ্ঞাত, সর্ব সাং- কুষ্টিয়া, থানা : কুষ্টিয়া সদর, জেলা : কুষ্টিয়াসহ তাদের সহযোগি অজ্ঞাতনামা ৩৫/৪০ জন আসামীদের বিরুদ্ধে এইমর্মে এজাহার দাখিল করেন। এজাহারে তিনি উল্লেখ করেন, পূর্ব শত্র“তার জের ধরে আসামীরা প্রায় সময় আমাকে প্রাণ নাশের হুমকি সহ মারার জন্য সুযোগ খুঁজতে থাকে। ঘটনার দিন ২২ নভেম্বর দুপুর ২:৩০ টার সময় আমি কুষ্টিয়া সার্কিট হাউজ থেকে প্রাইভেট কার যোগে শহরের পিয়ারাতলার উদ্দেশ্যে রওনা হলে ফুলতলা মোড়স্থ পাকারাস্তায় পৌছালে ৩টি মটরসাইকেল যোগে ৫/৬জন অজ্ঞাতনামা আসামী আমার গাড়ি থামানোর চেষ্টা করে। আমি দ্রুত কুষ্টিয়া সদরথানাধীন পিটিআই রোডে জননেতা মাহবুবউল আলম হানিফ এমপির বাড়ির উল্টোদিকে আমার খালার বাড়িতে চলে যাই।

এমন সময় আসামীরা আমার পিছু নিয়ে উক্ত বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে দেশীয় অস্ত্র, লোহার রড, হাতুড়ি, লাঠি, বাটাম ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে আমার খালার ভাড়া বাড়ির ৩য় তলায় দরজা ভেঙ্গে ঘরের ভেতর অনধিকার প্রবেশ করে আমার হাতে, পায়ে, বুকে, ফিঠে, মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাথারি আঘাত করে এবং রক্তাক্ত জখম করে। আসামীরা আমার খালাতো বোন সবনম মমতাজ জুঁথিকে এলোপাথারি কিলঘুষি মারে এবং চুলের মুঠি ধরে টানা হেচড়া করে পরিধানে থাকা কামিজ ছিড়ে শ্লীলতাহানী ঘটায়, ৩০ হাজার টাকা মূল্যের অপ্পো স্ক্রীনটাস আধুনিক মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। আমার খালা সিরিন পারভীনকে গলাটিপে স্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা করে এবং তার গলায় থাকা ৬০ হাজার টাকা মূল্যের ১২আনা ওজনের স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নেয়। এছাড়াও ভেনিটি ব্যাগ থেকে টিভি কেনা বাবদ ৪০ হাজার টাকা নিয়ে নেয়। আমার খালার ঘরের আনুমানিক ৫০ হাজার টাকা মূল্যের আসবাবপত্র ভাংচুর করে ব্যাপক ক্ষতিসাধন করে।

স্থানীয়রা জানায়, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ হাফিজ চ্যালেঞ্জকে পিটিআই রোডের গলির মধ্যেথেকে তার খালার বাসা হতে মারতে মারতে শার্টের কলার ধরে কেন এবং কি কারণে জননেতা মাহবুবউল আলম হানিফ এমপির বাড়ির সামনে আনা হয়? কেন সেখানে সাধারণ সম্পাদকের শার্ট ছিঁড়ে ফেলা ও পুলিশের হাত থেকে কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা ও মারধরের চিত্র মোবাইলে ভিডিও ধারণ করে তা ফেসবুকের মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়া হলো? এটি জামায়াত বিএনপি পরিবারের সন্তানদের কোন অশুভ ষড়যন্ত্র নয়তো?

এ বিষয়ে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক ছাত্রনেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আসগর আলী বলেন, এটি একটি গভীর ষড়যন্ত্র। আমাদের নেতার ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন করার অপচেষ্টামাত্র। ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের উপর যারা হামলা করেছে তারা ছাত্রলীগের কেউ হতে পারে না। এরা অনুপ্রবেশকারী ও ষড়যন্ত্রকারী। অবিলম্বে এদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনতে হবে।

এ বিষয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ দেলোয়ার হোসেন বলেন, আজ মামলা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারের অভিযান চলছে।

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: