প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

স্বপ্নীল দাস

পটুয়াখালী প্রতিনিধি

বাবা বিএনপি নেতা কন্যা ছাত্রলীগ নেত্রী

   
প্রকাশিত: ৯:৫৮ পূর্বাহ্ণ, ২৮ নভেম্বর ২০২২

পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য ও দাশপাড়া ইউনিয়ন বিএনপি’র সাবেক সভাপতি মো. আব্দুল খালেকের কন্যা ফারজানা আক্তার নিপা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। কোনো এক অদৃশ্য কারণে বিএনপি থেকে ও ছাত্রলীগ থেকে এই বাবা-কন্যার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে না।

ছাত্রলীগের পদ থেকে অব্যাহতি না নিয়ে ফারজানা আক্তার নিপা চাকরি করছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উচ্চমান সহকারী হিসেবে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানান দিয়ে সম্প্রতি বিয়েও করেছেন এই ছাত্রলীগ নেত্রী।

জানা গেছে, ২০১৯ সালের মে মাসে ঘোষিত ঢাবি ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে ফারজানা আক্তার নিপাকে সহ-সভাপতি করা হয়। তার বাবা আব্দুল খালেক ততকালীন সময়ে বাউফলের দাশপাড়া ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ছিলেন৷ ছাত্রলীগ নেত্রী হওয়ায় সহজে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে চাকুরি পেয়েছেন তিনি। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ১২-১৩ শিক্ষা বর্ষের ছাত্রী।

অন্যদিকে তার পিতা আব্দুল খালেক বর্তমানে উপজেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি নিজের ও কন্যার রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে নিজের বড় দুই সন্তানকে অত্যাচার করছে। বড় ছেলে সোহাগ ও মেয়ে রুপাকে বাড়ি থেকে তারিয়ে দেয়ার জন্য মারধর করেছেন একাধিকবার। আব্দুল খালেকের ছোট ছেলে সিয়াম প্রতিনিয়ত হত্যা করার হুমকি দিচ্ছেন তার বড় ছেলে সোহাগ ও মেয়ে রুপাকে। সোহাগ ও রুপার উপরে হামলার বিষয়ে এরআগে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। বাবা-কন্যার এই রাজনৈতিক দাপটে আতঙ্ক ও উৎকন্ঠায় রয়েছেন তারই সন্তান বিসিবির ফিজিওথেরাপিস্ট মো. সোহাগ ও নারী শিক্ষক উপমা ইসলাম রুপা।

এ বিষয়ে বাউফল উপজেলা বিএনপি’র আহবায়ক কমিটির সদস্য মো. আব্দুল খালেক বলেন, ‘ আমি আগে বিএনপি করতাম এখন রাজনীতির সাথে জড়িত না, একটা এনজিও পরিচালনা করছি। নিপা ভার্সিটিতে ভর্তি হয়েই ছাত্রলীগে যুক্ত হয়। বর্তমানে তিনি প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী৷ ‘ বড় সন্তানদের অত্যাচার করার অভিযোগ অস্বীকার করে তিনি বলেন, রুপা আমার বসতঘরে প্রবেশ করতে গেলে আমার ছোট ছেলে (সিয়াম) বাধা দেয়। এ সময় তাদের ভিতরে সামান্য ধাক্কাধাক্কি হয়। এটা ভাই বোনের ব্যাপার নিউজ করার মত বিষয় না।

মো. আব্দুল খালেকের সেজো কন্যা ঢাবি ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ফারজানা আক্তার নিপা’র মুঠোফোন নাম্বারে যোগাযোগের চেষ্টা করে সংযোগ পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে বাউফল উপজেলা ছাত্রলীগের এক শীর্ষ নেতা বলেন, আব্দুল খালেক দীর্ঘদিন থেকে বিএনপি’র রাজনীতি করছেন। তার মেয়ে নিপা কিভাবে দেশের শ্রেষ্ঠ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগে এত বড় পদ পেলো বিষয়টি আমাদের জানা নেই। কমিটি ঘোষণার আগে স্থানীয় ছাত্রলীগের নেতাদের থেকে খোঁজখবর নিলে এমন ঘটনা হতো না।

এসকল বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হোসেইন সাদ্দামের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, “নিপা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে চাকুরি করছেন।” ফারজানা আক্তার নিপা’র বাবার রাজনীতি ও তার বিয়ের বিষয়ে করা প্রশ্নের জবাব না দিয়েই তিনি ফোন কেটে দেন।

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: