প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

মোঃ শাকিল শেখ

সাভার করেসপন্ডেন্ট

সমাবেশের নামে সন্ত্রাস-নৈরাজ্য করলে হেফাজতের পরিণতি ভোগ করতে হবে বিএনপির

   
প্রকাশিত: ১২:২৫ পূর্বাহ্ণ, ২ ডিসেম্বর ২০২২

সাভার উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে যৌথ সভায় যোগ দিয়ে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের নেতারা হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ১০ ডিসেম্বর বিএনপি সমাবেশের নামে সন্ত্রাস-নৈরাজ্য করলে হেফাজতের পরিণতি ভোগ করতে হবে বলে জানিয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) বিকালে সাভার উপজেলা পরিষদের হলরুমে এ যৌথসভায় বক্তারা এসব কথা জানান।

এসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা বেনজীর আহমেদ এমপি ও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের নব-নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক পনিরুজ্জামান তরুণ।

এসময় সাভার উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসিনা দৌলার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুরুল আলম রাজিবের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন,সাবেক মহিলা সম্পাদক হালিমা আক্তার লাবণ্য ভূইয়া ,সদস্য সিরাজুল ইসলাম, ফখরুল ইসলাম সমরসহ অনেকেই।

তারা বলছেন, সরকার গণতান্ত্রিক পরিবেশ চায় বলেই বিএনপিকে সভা-সমাবেশ করতে দিচ্ছে। এটাকে কোনভাবেই দুর্বলতা ভাবা যাবে না। ১০ ডিসেম্বর সমাবেশের নামে কোন প্রকার অরাজকতা করলে ছাড় দেওয়া হবে না। ২০১৩ সালে হেফাজতের যে পরিস্থিতি হয়েছিল সেই পরিস্থিতি করবো। বিএনপিকে মোকাবিলা করার জন্য ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগই যথেষ্ট।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বেনজির আহমেদ বলেন, বিজয়ের মাসে আবারও ১৯৭১ এর পরাজিত শক্তি সভা সমাবেশের নামে নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে চাচ্ছে। বিজয়ের মাসে ঢাকায় কোন ধরনের নৈরাজ্য-সন্ত্রাস বরদাসত করা হবে। এ জন্য ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগ রাজপথে সক্রিয় থাকবে। যেখানেই নৈরাজ্য সেখানেই প্রতিরোধ।

ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পনিরুজ্জামান তরুন বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। সেই সময় বিএনপি দেশের স্থিতিশীল পরিবেশ নষ্ট করতে চায়। তারা সন্ত্রাসের ভাষায় কথা বলছে। ১০ ডিসেম্বর সমাবেশের নামে নৈরাজ্য করলে কোন ধরনের ছাড় দেওয়া হবে না। তিনি বলেন, হুঁশিয়ার করে দিতে চাই, এর আগেও ঢাকায় হেফাজত সন্ত্রাস-নৈরাজ্য করেছিল।

তিনি আরও বলেন, শান্তিপূর্ন সমাবেশ করুন, সব ধরনের সহযোগীতা করবো। কিন্তু নৈরাজ্য-সন্ত্রাস করবেন, মনে রাখবেন, হেফাজতের যে পরিস্থিতি হয়েছিল, আপনাদেরও তাই হবে। বিএনপির সন্ত্রাস মোকাবিলার জন্য ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগই যথেষ্ট। তিনি জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে এই জেলার নেতা কর্মীরা সব সময় ছিল এবং থাকবে। আগামী ১০ ডিসেম্বর জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বড় ধরনের সমাবেশ করা হবে। সেই সভা সফল করতে আজ যৌথসভা ডাকা হয়।

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: