প্রচ্ছদ / সারাবিশ্ব / বিস্তারিত

১১ লাখের যৌতুক ফিরিয়ে দিয়ে বিয়ের পিঁড়িতে বসলেন যুবক

   
প্রকাশিত: ১২:১১ পূর্বাহ্ণ, ১০ ডিসেম্বর ২০২২

ভারতের সংবিধানের আইন অনুসারে বিয়েতে কনেপক্ষের থেকে পণ নেওয়া নিষিদ্ধ; কিন্তু নিয়মের তোয়াক্কা না করেই পণ নেওয়ার অভিযোগ অসংখ্যবার প্রকাশ্যে এসেছে, আসছে। কনেপক্ষ চাহিদামতো পণ না দেওয়ায় বিয়ের আসর থেকে বরের উঠে যাওয়ার উদাহারণও রয়েছে অনেকে। কিন্তু এক্ষেত্রে এবার রীতিমতো দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন উত্তরপ্রদেশের মুজফফরনগরের যুবক সৌরভ চৌহান। বিয়ের আগে কণেপক্ষ মোটা টাকার পণ দিলেও তা প্রত্যাখ্যান করেই বিয়ে সেরেছেন তিনি।

ভারতীয় একাধিক গনমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, পেশায় রাজস্ব কর্মকর্তা সৌরভ চৌহান সম্প্রতি বিয়ে করেছেন। বিয়ের আগে সৌরভকে কনের বাড়ির পক্ষ থেকে ১১ লাখ রুপি পণ হিসেবে দেওয়া হয়েছিল।কিন্তু বিয়ের দিন কনেপক্ষকে সেই অর্থ ফিরিয়ে দিয়ে নিয়ম রক্ষার্থে মাত্র ১ টাকা নিয়ে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন সৌরভ। ভারতের বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোমাধ্যম প্ল্যাটফরমেই এ ঘটনা এসেছে।

এছাড়া বিহার, উত্তরপ্রদেশসহ ভারতের আরও কিছু রাজ্যে অতিরিক্ত পণ নেওয়ার অভিযোগ প্রায়েই প্রকাশ্যে আসে। পাত্র যদি সরকারি চাকরিজীবী বা উঁচু পদে কর্মরত হন, তা হলে কনের বাড়ির কাছ থেকে মোটা টাকার পণ দাবি করে থাকেন পাত্রপক্ষের লোকজন। এই প্রেক্ষাপটে পণ ফিরিয়ে যে ভাবে বিয়ে করলেন সৌরভ, তাতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সবাই তার প্রশংসা করেছেন।

রেজানুল/সা.এ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: