নাইমুর রহমান

নাটোর প্রতিনিধি

প্রযুক্তি মেলায় খেলনা কামান বিস্ফোরণ

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৯:২০:০০

শুরু হয়েছে লাগসই প্রযুক্তির ব্যবহার ও সম্প্রসারণ মেলা। সেখানে বিলচলন কারিগরি ও কমার্স কলেজের একটি স্টল ছিল। কলেজের পক্ষে সেই মেলায় নিজেদের আবিস্কৃত খেলনা কামান প্রদর্শন করেছিল পাঁচ বন্ধু। সকালের শুরুটা ভালই ছিল তাদের। দুপুরে হঠাৎ পাল্টে গেল চিত্র।

তখন দুপুর আড়াইটা হবে। মেলার ভিতর বিকট শব্দ। একটি স্টলের ভিতর ধুঁয়া উড়ছিল। মাটিতে পড়ে আছে আহত দর্শনার্থী ছাত্র শাহাবুদ্দিন (১৮)। তার গলা থেকে রক্ত ঝড়ছে।

স্থানীয়রা ওই ছাত্রকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। প্রথমিক চিকিৎসা শেষে অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। দর্শনার্থী শাহাবুদ্দিন খুবজীপুর এম হক ডিগ্রী কলেজের এইচএসসি প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী ও বিয়াঘাট ইউনিয়নের সাবগাড়ি গ্রামের ফয়জাল সরকারের ছেলে।

খেলনা কামানের আবিস্কারক শিক্ষার্থী নোমান, রিয়াদ, আশরাফুল, শরিফুল ও সোহাগ জানায়, তারা পাঁচ বন্ধু মিলে ওই কামান আবিস্কার করেছে। কলেজের স্টলে সেই কামান প্রদর্শন করা হয়। স্টলের ভেতরেই রোববার দুপুরে দর্শনার্থী শাহবুদ্দিন কামানটি মেরামত করছিল। এসময় হঠাৎ কামানের বিস্ফোরণ ঘটে। তারা কোন মতে বেঁচে গেলেও শাহাবুদ্দিনের গলায় স্পিন্ট আঘাত হানে। মাটিতে লুটিয়ে পড়ে সে।

ওই কলেজের বিজ্ঞান বিষয়ের শিক্ষক মিরাজুল ইসলাম ও ট্রেড ইন্সট্র্যক্টর আবু শামীম জানান, শিক্ষার্থীদের আবিস্কৃত খেলনা কামানটির বিস্ফোরণ ঘটে। এসময় ছাত্র শাহাবুদ্দিন গুরুত্বর আহত হয়। বিকট আওয়াজে অনেকেরই কানে সাময়িক সমস্যা দেখা দেয়।

মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. হাফিজুর রহমান বলেন, শিক্ষার্থীদের আবিস্কৃত খেলনা কামানটি মেলায় প্রদর্শন করা হয়েছিল। এছাড়া বেশ কয়েকটি প্রযুক্তির ব্যবহারও রয়েছে ওই স্টলে।

অনাকাঙ্খিতভাবে এক দর্শনার্থী স্টলে ঢুকে কামানটি নারাচারা করছিল। এসময় বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। তাৎক্ষণিক আহত ছাত্রকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মেলায় সাময়িক আতংক সৃষ্টি হলেও পরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।


বিডি২৪লাইভ/এমআরএম

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: