মো: মিজানুর রহমান

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

দুই যুগ পর ঝিনাইদহে পৌর আওয়ামী লীগের সম্মেলন

২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০৭:০০:০০

দীর্ঘ দুই যুগ পর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ঝিনাইদহ পৌর আওয়ামী লীগের সম্মেলন। সম্মেলনকে ঘিরে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে নেতাকর্মীদের মাঝে। কাউন্সিলের মাধ্যমে দলের তরুণ নেতাকর্মীরা নতুন নেতৃত্ব প্রত্যাশা করছেন। তবে নবীণ ও প্রবীণের সমন্বয়ে নতুন কমিটি গঠিত হবে এমন আশা দলের বয়োজ্যেষ্ঠ নেতাদের।

কে হচ্ছেন ঝিনাইদহ পৌর আওয়ামী লীগের নতুন কান্ডারী? এ প্রশ্নকে ঘিরেই সবার আগ্রহ ১ মার্চের দিকে। সর্বশেষ পৌর আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছিল ১৯৯৪ সালে। সে সময় ডা: আজিজুর রহমানকে সভাপতি ও এম এ সামাদকে সাধারণ সম্পাদক করে ৪৯ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়। বর্তমান কমিটির মধ্যে মারা গেছেন প্রায় ১০ জন। রাজনীতিতে অনুপস্থিত রয়েছেন আরও প্রায় ১০ জন।

৯৪ সাল থেকে এ পর্যন্ত জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব কয়েকদফা পাল্টালেও কোন নেতৃত্ব পৌর আওয়ামী লীগের কমিটি গঠন করেন নি। ৯৪ সালে পৌর আওয়ামী লীগের কমিটি গঠন করার সময় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন প্রয়াত এ্যাড. আইয়ুব হোসেন এবং সাধারণ সম্পাদক ছিলেন প্রয়াত মতিয়ার রহমান। ১৯৯৮ সালে আইয়ুব হোসেন সভাপতি ও আব্দুল হাই সাধারণ সম্পাদকের দ্বায়িত্ব পালন করেন।

২০০২ সালে জেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়। কমিটিতে মো: আব্দুল হাই এমপিকে আহ্বায়ক ও শফিকুল ইসলাম অপুকে যুগ্ম আহ্বায়ক করা হয়। ২০০৫ সালে সম্মেলনের মাধ্যমে মো: আব্দুল হাই এমপিকে সভাপতি ও এ্যাড. আজিজুর রহমানকে সাধারণ সম্পাদক করে জেলা আওয়ামী লীগের কমিটি গঠন করা হয়। ২০১৬ সালে মো: আব্দুল হাই এমপিকে সভাপতি ও সাইদুল করিম মিন্টুকে সাধারণ সম্পাদক জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক কমিটি গঠন করা হয়। ১৯৯৪ সাল থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত জেলা আওয়ামী লীগের কোন নেতৃত্বই পৌর আওয়ামী লীগের সম্মেলন নিয়ে ভাবেন নি।

সর্বশেষ জেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান কমিটির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ সাইদুল করিম মিন্টু এ উদ্যোগটি গ্রহণ করেছেন। তিনি এ সম্মেলন উপলক্ষে পৌর আওয়ামী লীগের ৯ টি ওয়ার্ডের সম্মেলন উৎসবমুখর পরিবেশে সম্পন্ন করেছেন।

দীর্ঘদিন পর সম্মেলন হচ্ছে তাই নেতাকর্মীদের মধ্যে উৎসাহ-উদ্দীপনার শেষ নেই। নতুন করে দৌঁড়ঝাপ শুরু হয়েছে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থীদের মধ্যে। সম্ভাব্য প্রার্থীরা নতুন করে দলের নেতাকর্মীদের খোঁজ-খবর নিচ্ছেন। সম্মেলনকে কেন্দ্র করে শহরে ব্যানার, ফেস্টুন, মিছিল, সমাবেশ করছেন তারা।
পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি পদে এ পর্যন্ত যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন-সভাপতি পদে বর্তমান কমিটির সাধারণ সম্পাদক এম এ সামাদ, সাধারণ সম্পাদক পদে জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক জীবন কুমার বিশ্বাস ও জেলা ছাত্রলীগ ও জেলা যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলামের। তবে প্রার্থীতা আরও বাড়তে পারে বলে অসমর্থিত সুত্রে জানা গেছে।

দুই যুগ পর অনুষ্ঠিতব্য এ সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্লাহ’র। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলম হানিফ এমপি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, কার্যানির্বাহী সংসদের সদস্য এস এম কামাল হোসেন, কার্যানির্বাহী সংসদের সদস্য পারভীন জামান কল্পনা।

শহরের উজির আলী স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে ১ মার্চ বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাই এমপি। প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখবেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র আলহাজ সাইদুল করিম মিন্টু। সভাপতিত্ব করবেন পৌর আওয়ামী লীগের বর্তমান কমিটির সভাপতি ডা: আজিজুর রহমান।

পৌর আওয়ামী লীগের সম্মেলন উপলক্ষে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ সাইদুল করিম মিন্টু বলেন, ২০১৮ সালের সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নির্দেশে তৃণমূল সংগঠনকে শক্তিশালী করার জন্য পৌর আওয়ামী লীগের সম্মেলন করা হচ্ছে। আমি আশা করি এই সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্বে যারা আসবেন তারা ঐক্যবদ্ধ ভাবে জননেত্রী শেখ হাসিনার ক্ষুধা, দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ গঠনে, ভিশন-২০২১ ও ২০৪১ বাস্তবায়নে, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার দৃঢ় প্রত্যয়ে এবং উন্নত বাংলাদেশ গড়ার পথে সহায়ক শক্তি হিসেবে কাজ করবে। তিনি বলেন, আগামী সংসদ নির্বাচনে দেশনেত্রী শেখ হাসিনা যাকে দলীয় মনোনয়ন দিবেন তাকে আমরা নতুন নেতৃবৃন্দকে নিয়ে ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করে নৌকার বিজয় ছিনিয়ে আনব।


বিডি২৪লাইভ/এইচকে

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: