সম্পাদনা: সাজিদ সুমন

ডেস্ক এডিটর

পর্দা উঠলো বিশ্বকাপের

১৪ জুন, ২০১৮ ২০:৪৩:৪৮

ছবিঃ প্রতীকী।

কত প্রস্তুতি শেষে চার বছরের অপেক্ষা ঘুচিয়ে অবশেষে বজ্রপাতের মতো।আতশবাজির এক ঝটকায় কেঁপে উঠল গোটা বিশ্ব। পর্দা উঠলো দ্যা গ্রেটেস্ট শো অন আর্থের। সাক্ষী থাকলো মস্কো। শহরটির ২০২ টনের বোবা ঘণ্টাটিও যেন আজ বেজে উঠল, ঘোষণা করল এক ফুটবল 'মহাযুদ্ধের'। যেখানে লড়বে ৩২ দল। ফুটবলারদের বুট হয়ে উঠবে ঘোড়ার খুর। সবুজ ঘাসে পায়ের আঘাতে ফুলকি ঝরাবে আগামী এক মাস। খেলোয়াড়দের ঘামে সিক্ত হবে রাশিয়ার ১২টি স্টেডিয়াম।

বৃহস্পতিবার (১৪ জুন) বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৮টায় শুরু হয় জমকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠান।

এরইমধ্যে প্রায় ১৫ লাখ ফুটবলপ্রেমী হাজির হয়েছে রাশিয়ায়। বিশ্বব্যাপী টেলিভিশন ও ইন্টারনেটের মাধ্যমে বিশ্বকাপে চোখ রাখবে আরও প্রায় ৩০০ কোটি মানুষ। এ 'নেশা' ফুটবলবিশ্বকে ডুবিয়ে রাখবে আগামী এক মাস।

৮০ হাজার দর্শকধারণ ক্ষমতার লুঝনিকি স্টেডিয়ামে শুরুতেই পুরো দুনিয়াকে তাক লাগিয়ে দিতে প্রস্তুত ৫০০ নৃত্যশিল্পী। এরপর মনোমুগ্ধকর সব কৌশলে মুগ্ধ করতে মুখিয়ে আছেন জিমন্যাস্টরা। রাশিয়ার ঐতিহ্য, কৃষ্টি ও কালচার তুলে ধরবেন স্থানীয় শিল্পীরা।

যেখানেই একতা, সেখানেই আছে জয়। এ স্লোগান দিয়ে বিশ্বকাপের অফিসিয়াল থিম সং লিভ ইট আপ নিয়ে মঞ্চ মাতাবেন নিকি জ্যাম ও ইরা ইস্ত্রোফী। সঙ্গে থাকবেন হলিউড তারকা উইলস্মিথ। গানের সঙ্গে চমৎকার কোরিওগ্রাফীতে মঞ্চ মাতাবেন নৃত্যশিল্পীরা।

তবে, আকর্ষণের কেন্দ্রজুড়ে থাকবেন ইংল্যান্ডের ৯০ দশকের পপ তারকা রবি উইলিয়ামস। তারপরেই মঞ্চে আসবেন রাশিয়ানদের নয়নের মনি সঙ্গীতশিল্পী আইদা গারিফুলিনা।

বিশ্বকাপের উদ্বোধনীতে আলো ছড়াবেন ব্রাজিলের বিশ্বকাপজয়ী তারকা রোনালদো। মঞ্চে তার উপস্থিতি এনে দেবে ভিন্নমাত্রা। লুঝনিকির মতোই মস্কোর বিখ্যাত রেড স্কয়ারে রাখা হয়েছে উদ্বোধনী কনসার্ট। সেখানে মঞ্চ মাতাবেন প্লেসিডো ডোমিঙ্গো, দিয়েগো ফ্লোরেজের মত তারকা শিল্পীরা।

শেষটায় পুরো পৃথিবীকে বিশ্বকাপের আগমনী বার্তা ছড়িয়ে দিতে থাকবে জমকালো আতশবাজি

বিডি২৪লাইভ/এসএস

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: