প্রচ্ছদ / রাজনীতি / বিস্তারিত

মোঃ সাইফুল ইসলাম

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রধানমন্ত্রীকে গণসংর্বধনা

‘স্মরণকালের স্মরণীয় সমাবেশের প্রস্তুতি নিচ্ছে আ’লীগ’

১৮ জুলাই, ২০১৮ ১৪:৫০:৫৮

ছবিঃ প্রতীকী।

আগামী ২১ জুলাই রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনাকে গণসংর্বধনা দিতে সর্বোচ্চ প্রস্তুতি নিচ্ছে দলের নেতাকর্মীরা। অনুষ্ঠান সফল করতে ইতিমধ্যে নেয়া হয়েছে নানা উদ্যোগ। ২১ জুলাইকে ঘিরে দলের সম্পাদকমণ্ডলী থেকে শুরু করে মহানগরের নেতাকর্মীদের সাথে বৈঠক ছাড়াও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতা এবং ঢাকা ও এর আশপাশের জেলার নেতা এবং দলীয় এমপিদের নিয়ে বৈঠক করেছে দলটি।

আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতারা বলেন, মহাকাশে বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটের সফল উৎক্ষেপণ, বাংলাদেশের স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ এবং অস্ট্রেলিয়ায় গ্লোবাল উইমেনস লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড এবং সর্বশেষ ভারতের কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিলিট ডিগ্রি অর্জনসহ শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ সরকারের আমলের উন্নয়ন-অর্জনে অসামান্য অবদান রাখার জন্য সংর্বধনার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সংবর্ধনাকে ঘিরে নগরে বিভিন্ন এলাকায় লাগানো হয়েছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবিসহ সরকারের উন্নয়ন ও অর্জনের তথ্যসম্বলিত পোস্টার, ফেস্টুন ও ব্যানার। এরই মধ্যে সোহরাওয়াদী উদ্যনে স্টেইজ করার কাজ চলছে।

এই গণসংবর্ধনাকে ঘিরে উদ্যানের আশে পাশে কয়েক শত মাইক লাগানো হবে। এছাড়া ঢাকার পার্শ্ববর্তী জেলা, ঢাকা মহানগর এবং আমাদের সহযোগী সংগঠনগুলোর সঙ্গে আলোচনা করেছি। এখান থেকে হাজার হাজার নেতাকর্মী সংর্বধনায় অংশ নিবেন। এইট স্মরণকালের স্মরণীয় একটা সমাবেশ হবে বলে জানা যায়। এই গণসংবর্ধনায় ২৫ হাজার আসনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সংবর্ধনাকে ঘিরে নিরাপত্তার বেস্টুনীতে ঘিরে রাখা হবে পুরো শহরকে। সংবর্ধনা অনুষ্ঠান ঘিরে ঢাকার আশপাশের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীরাও নিচ্ছেন নানা প্রস্ততি। দলীয় প্রধানের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান ঘিরে ব্যতিক্রমী প্রস্তুতি নিচ্ছেন মহানগরের সিনিয়ন নেতারা। সেদিন নেতাকর্মীদের হাতে জয় বাংলা স্লোগান সম্মলিত প্রায় দুই হাজার ছোট-বড় নৌকা দেওয়া হবে। পাশাপাশি বর্তমান সরকারের উন্নয়নমূল চিত্র তুলে ধরে বিভিন্ন ফ্যাস্টুন-ব্যানারও থাকবে। দুই শতাধিক পিকআপ ভ্যান সাজিয়ে সংবর্ধনায় যোগ দেবেন তিনি।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর গণসংর্বধনা অনুষ্ঠানটি সফল করতে আমরা ঢাকার পার্শ্ববর্তী জেলা, ঢাকা মহানগর এবং আমাদের সহযোগী সংগঠনগুলোর সঙ্গে আলোচনা করেছি। আমরা আশা করছি স্মরণকালের স্মরণীয় একটা সমাবেশ আমরা করতে পারব। আমাদের নেত্রীকে আমরা একটা সুশৃঙ্খল গণসংবর্ধনা উপহার দিতে চাই।’

বিডি২৪লাইভ/এসআই/এসএস

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: