আবারও বুলবুলকে বুকে জড়িয়ে ধরলেন লিটন

১৮ জুলাই, ২০১৮ ১৯:১৮:৩৬

ছবি: প্রতিনিধি

শামসুজ্জোহা বাবু,
রাজশাহী প্রতিনিধি:

রাজশাহীর রাজনৈতিক অঙ্গনে আবারো মহানুভবতা ও সম্প্রীতির এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি, আওয়ামী লীগ মনোনীত, মহাজোট সমর্থিত মেয়র প্রার্থী, সাবেক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।

বুধবার (১৮ জুলাই) দুপুরে রাজশাহী কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড মিলনায়তনে মতবিনিময় সভায় উপস্থিত সব মেয়র ও সাধারণ ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থীদের অবাক করে দিয়ে প্রতিপক্ষ বিএনপির মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে বুকে জড়িয়ে নেন ও কোলাকুলি করেন খায়রুজ্জামান লিটন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাজশাহী কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড মিলনায়তনে আয়োজিত রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন-২০১৮ প্রার্থীদের সাথে মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। সভায় নির্বাচন কমিশনার শাহাদত হোসেন চৌধুরী, নির্বাচন কমিশন সচিব, জেলা প্রশাসক ও মহানগর পুলিশ কমিশনারসহ নির্বাচনের সব মেয়র, কাউন্সিলর ও নারী কাউন্সিলর প্রার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

সভার শেষের দিকে বিএনপির প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল বক্তব্য দেন। বুলবুল তার বক্তব্যে নানান অভিযোগ ও নির্বাচন কমিশানের কাছে তার প্রত্যাশাও তুলে ধরেন। বুলবুলের বক্তব্য দেওয়ার পর বক্তব্য দিতে মঞ্চে ওঠেন আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।

এ সময় খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ভোটাদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার সৃষ্টি হয়েছে। নির্বাচনের শেষ দিন পর্যন্ত এমন পরিবেশ আমরা রাখতে চাই। সাত মিনিটের বক্তব্য শেষ করে মঞ্চের সামনে প্রার্থীদের বসে থাকার নির্ধারিত স্থানে এসে সেখানে বসে থাকা বিএনপির প্রার্থী বুলবুলের সাথে হাত মেলান, বুকে জড়িয়ে ধরে কোলাকুলি করেন খায়রুজ্জামান লিটন। এরপর বুলবুল ও নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শফিকুল হক মিলনের মাঝের শোফায় বসে যান খায়রুজ্জামান লিটন।

এ সময় বুলবুলের পাশে বসে ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা সাবেক মেয়র মিজানুর হমান মিনু। লিটনের এই মহানুভবতা ও সম্প্রীতির দৃশ্য দেখে হাততালি দেন উপস্থিত অন্যান্য মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা। পরে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিতে গিয়ে সভার প্রধান অতিথি নির্বাচন কমিশনার শাহাদত হোসেন চৌধুরী, বিশেষ অতিথি নির্বাচন কমিশনারের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ ও রাজশাহী পুলিশ কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের প্রশংসা করেন।

এ সময় তাঁরা সব প্রার্থীদের নির্বাচন চলাকালীন ও নির্বাচন পরবর্তীও এমন সৌর্হাদ্যপূর্ণ ও সম্প্রীতির সম্পর্ক রাখার আহ্বান জানান।

প্রসঙ্গত, এর আগে গত ৬ জুলাই রাজশাহী কলেজ মাঠে এক বেসরকারি টেলিভিশনের নির্বাচনী টকশোতে অংশ নিয়েছিলেন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ও বিএনপির মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল। টকশো শেষে কোনো কথা না বলে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে বুলবুল চলে যেতে কিছুদুর এগিয়ে গেলে খায়রুজ্জামান লিটন বুলবুলের দিকে এগিয়ে গিয়ে তার সঙ্গে কোলাকুলি করেছিলেন। এ ঘটনায়ও সর্বমহলে প্রসংশিত হয়েছিলেন খায়রুজ্জামান লিটন।

বিডি২৪লাইভ/এমকে

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: