প্রচ্ছদ / বিনোদন / বিস্তারিত

সম্পাদনা: মামুন কবীর

ডেস্ক কন্ট্রিবিউটর, বিডি২৪লাইভ

চলে গেলেন মিস্টার বিন, এর পরেই বিপদ! 

১৯ জুলাই, ২০১৮ ১৫:৫৯:৩৫

ছবি: সংগৃহীত

বিশ্বের তুমুল জনপ্রিয় ব্রিটিশ অভিনেতা রোয়ান অ্যাটকিনসনের ‘মিস্টার বিন’ মারা গেছেন। এমন সংবাদ শুনে কার না আগ্রহ জাগবে কিভাবে বিন মারা গেছেন তা জানার জন্য। মৃত্যুসংবাদ শুনা মাত্রই অবাক বিস্ময়ে খবর জানার জন্য আগ্রহী হয়ে পড়বেন এটাই স্বাভাবিক। অনেকেই এই অভিনেতার খবর শুনা মাত্রই হয়ত জানতে চাইবেন মৃত্যুর কারণ।

মিস্টার বিন মারা গেছেন! কিন্তু তার পরেই জানা গেছে এই খবর একেবারেই ভুয়া। কেউ বা কারা যেন নেট-দুনিয়ায় ইচ্ছাকৃত ভাবেই ছড়িয়েছে ৬৩ বছর বয়সের তুমুল জনপ্রিয় ব্রিটিশ অভিনেতা রোয়ান অ্যাটকিনসনের মৃত্যুসংবাদ।

ভার্চুয়াল ওয়ার্ল্ডে প্রায়শই খ্যাতনামা ব্যাক্তিদের মৃত্যুসংবাদ রটে । রোয়ান অ্যাটকিনসনের মৃত্যুসংবাদ এর আগেও রটেছে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ‘মিরর’-এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কিছুদিন আগে গুজব রটে, মিস্টার বিন এক গাড়ি দুর্ঘটনায় মারা গেছেন। সোশ্যাল মিডিয়া ভুয়া নিউজটি পরিবেশিত হয় ‘ফক্স ব্রেকিং নিউজ’ নামের কোনও নকল সংবাদসংস্থার নাম দিয়ে।

অনেক মানুষ তাঁদের প্রিয় কমেডিয়ান মিস্টার বিনের মৃত্যুসংবাদে উদ্বেগ হয়ে শোকবার্তা পোস্ট করতে শুরু করেন। অনেকেই এই লিঙ্কটি ক্লিক করতে গিয়ে বোকা বনেন। তেমন কোনও খবরের অস্তিত্ব তাঁরা খুঁজে পাননি।

‘মিরর’-এর প্রতিবেদন জানানো হয়েছে, এই পোস্টটিতে যাঁরা ক্লিক করছেন, তাঁদের প্রত্যেকের কম্পিউটার নাকি সঙ্গে সঙ্গে ভাইরাস-আক্রান্ত হয়ে পড়ে। অনুমান করা হচ্ছে, এটি কোনও স্ক্যাম ওয়েবসাইটের সঙ্গে সংযুক্ত।

ইন্টারনেটে খবর জালিয়াতি ধরার ওয়েবসাইট ‘হোক্স স্লেয়ার’-এর প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, এই লিঙ্ক কিছু সিকিউরিটি ভুল পেজ-এ নিয়ে যেতে পারে, যেখানে এমন দাবি থাকতে পারে আপনার কম্পিউটারটি লকড হয়ে গেছে এবং সেই সঙ্গে একটি সাপোর্ট নম্বরে ফোন করতে বলা হচ্ছে। এই নম্বরে ফোন করতে নিষেধ করছে ‘হোক্স স্লেয়ার’। সেখান থেকেই প্রতারণা শুরু হতে পারে। আপনার ক্রেডিট কার্ড নম্বর চুরি থেকে আপনার কম্পিউটারে ম্যালওয়্যার পাঠানো সবই সম্ভব হতে পারে এরকম ভয়ানক প্রতারণার মাধ্যমে।

সুতরাং সাবধান! আপনার প্রিয় অভিনেতার মৃত্যুসংবাদে বিচলিত না হয়ে প্রথমে খোঁজ নিন খবরটি সত্য কি না।

বিডি২৪লাইভ/এমকে

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: