আরেফিন আল ইমরান

ডেস্ক কন্ট্রিবিউটর

যাজকদের যৌন নির্যাতন, বেরিয়ে এল আসল সত্য!

১৫ আগস্ট, ২০১৮ ১৪:২৮:০০

ছবি: সংগৃহীত

যৌন নির্যাতনকারি ৩০০ জনেরও বেশি যাজকের পরিচয় পাওয়া গেছে আমেরিকার পেনসিলভানিয়ায়। বিকৃতিতে আসক্ত এইসব যাজকদের মাধ্যমে এক হাজারের মত শিশু যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছে বলে জানিয়েছেন ওই রাজ্যের সুপ্রিম কোর্টের প্রধান জুরি। লিখিত রিপোর্টের মাধ্যমে এসব কথা তুলে ধরেন তিনি।

প্রায় ৯০০ পৃষ্ঠার এই রিপোর্টটি, ক্যাথলিক চার্চের যৌন নির্যাতনের বিরুদ্ধে আমেরিকার ইতিহাসের অন্যতম বৃহৎ তদন্ত বলে বিবেচিত হচ্ছে। এতে বেরিয়ে এসেছে, দশকের পর দশক ধরে শিশুদের উপর কিভাবে পাশবিক নির্যাতন চালানো হয়েছে। পাশপাশি উঠে এসেছে, অপকর্মগুলো গোপন করার জন্য চার্চের সচেতন প্রয়াস।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘শিশুদের উপর যৌন নির্যাতনের আরো রিপোর্ট তৈরি হয়েছে। তবে এটার মত বড় মাপের নয় আগের কোনোটিই। আমরা জানতাম এটা কোথাও কোথাও ঘটে; কিন্তু এখন প্রকৃত সত্য প্রকাশিত হয়েছে; আসলে এটা সর্বত্রই ঘটে।’

প্রতিবেদনে উঠে এসেছে যাজকদের যৌন লালসার বিভিন্ন ঘটনা। এক যাজক স্বীকার করেছেন, ‘তিনি ওরাল ও অ্যানাল সেক্সে বাধ্য করেছেন অন্তত ১৫ জন বালককে’। বালকদের মাঝে একজনের বয়স ছিল মাত্র সাত বছর।

আমেরিকা ভিত্তিক অ্যাডভোকেসি গ্রুপ ‘স্ন্যাপ’ এর সভাপতি টিম লেনন রিপোর্টের প্রশংসা করে বলেছেন, এটা সরকারের তরফ থেকে সাহসী উদ্যোগ যা এরকম বড় পরিসরে সংকলিত হয়েছে। ‘স্ন্যাপ’যাজকদের এই যৌন অত্যাচারের বিরুদ্ধে সোচ্চার ভূমিকা রাখছে অনেকদিন ধরে।

উপযুক্ত শাস্তি ও বিচারের ন্যায্যতা নিশ্চিত করতে এই প্রতিবেদনটি আমেরিকায় উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে বলে মনে করছে নাগরিক সমাজ। কারণ, এর আগে যৌন নির্যাতনের ঘটনায় অনেক ক্ষেত্রেই যাজকরা নিজেদের জবাবদিহি নিশ্চিত করার পাশাপাশি ও সমাজের প্রতি দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখতে ব্যর্থ হয়েছেন। অনেকে শাস্তি না পেয়ে পদোন্নতিও অর্জন করেছেন।

তবে পেনসিলেভানিয়ার এই তদন্ত রিপোর্ট গণমানুষকে সচেতন করার পাশাপাশি এধরণের অপরাধের সঠিক শাস্তিও নিশ্চিত করতে সহায়তা করবে বলে আশা করছে, দেশটির আপামর মানুষ। সূত্র: দা গার্ডিয়ান

বিডি২৪লাইভ/এএআই

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: