সম্পাদনা: খায়রুল ইসলাম রাজিব

ডেস্ক এডিটর

কোরবানি না করে সেই অর্থ গরিবদের মধ্যে বণ্টন করা যাবে?

১৯ আগস্ট, ২০১৮ ০০:৫৪:৪৪

নামাজ, রোজা, হজ, জাকাত, পরিবার, সমাজসহ জীবনঘনিষ্ঠ ইসলামবিষয়ক প্রশ্নোত্তর অনুষ্ঠান ‘আপনার জিজ্ঞাসা’। জয়নুল আবেদীন আজাদের উপস্থাপনায় দেশের বেসরকারি একটি টেলিভিশনের জনপ্রিয় এ অনুষ্ঠানে দ‍র্শকের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন বিশিষ্ট আলেম ড. মুহাম্মদ সাইফুল্লাহ।

প্রশ্ন : কোরবানির পশুর অর্থ দিয়ে কোরবানি না করে গরিবদের মাঝে বণ্টন করা যাবে কি?

উত্তর : কোরবানির পশু জবাই করা উত্তম, নাকি সেই টাকাটা সদকা করে দেওয়া উত্তম, এই বিষয় নিয়ে আলেমদের মধ্যে একটু মতপার্থক্য রয়েছে।

কিন্তু প্রায় সব ওলামায়ে কেরামের ঐক্যমতে এটি সাব্যস্ত হয়েছে যে, কোরবানির পশু জবাই করাটাই উত্তম।

কারণ আল্লাহর নবী (সা.) পশু জবাই করেছেন। যদি এমনটি হতো নবী (সা.) জবাই না করতেন বা সদকা করে দিতেন, তাহলে প্রমাণ পাওয়া যেত যে সদকা করাটা উত্তম।

প্রথম কথা হচ্ছে, নবী (সা.) জবাই করেছেন। শুধু জবাই-ই করেছেন তা কিন্তু না। নবী (সা.) কোরবানির পশু তাঁর সাহাবিদের মধ্যে বণ্টন করে দিয়েছেন এবং সাহাবিদের রাসুল (সা.) বলেছেন যে, তোমরা জবাই করো। নবী (সা.) কিন্তু বলেননি তোমাদের মধ্যে সদকা করে দিয়েছি, তোমরা নিয়ে যাও। বরং জবাই করতে নির্দেশ দিয়েছেন।

এই জন্য হাসান বসরি (র.) বর্ণনা করে বলেন, ‘আল্লাহর রাস্তায় সন্তুষ্টির জন্য কোরবানি হিসেবে একটি ছাগল জবাই করা আমার কাছে ১০০ দিরহাম আল্লাহর রাস্তায় সদকা করার চাইতে উত্তম।’ তখনকার সময়ে ১০ দিরহাম বা তার কাছাকাছি দিরহামে একটি ছাগল পাওয়া যেত।

এর কারণ হিসেবে তিনি বলেন, ‘আল্লাহর রাস্তায় এই রক্ত প্রবাহিত করার বিষয়টিকে আল্লাহ সুবহানাহু তায়ালা ইসলামের একটি মৌলিক নিদর্শন হিসেবে উল্লেখ করেছেন।’ কোরআনে কারিমের সুরা হজের মধ্যে আল্লাহ তায়ালা বলেন, ‘এই কোরবানি মুসলিম উম্মার জন্য একটি নিদর্শন হিসেবে আমি করে দিয়েছি, এই নিদর্শন তোমরা বাস্তবায়ন করবে।’

এতে আরো অনেক বিষয় রয়েছে। মোটামুটি সংক্ষিপ্তভাবে যেটি বলতে পারি সেটি হচ্ছে, জবাই করাটাই উত্তম।

বিডি২৪লাইভ/আরআই

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: