সম্পাদনা: সাজিদ সুমন

ডেস্ক এডিটর

শিক্ষকের কাণ্ড!

২১ আগস্ট, ২০১৮ ২২:১৬:৫৫

ছবি: প্রতিনিধি

শামসুজ্জোহা বাবু,রাজশাহী থেকেঃ

চাঁপাইনবাবগঞ্জ হতে সেলিম হাসান একই সাথে দীর্ঘদিন ধরে দুই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চাকুরি করে সরকারী সুযোগ সুবিধা ভোগের অভিযোগ উঠেছে গোদাগাড়ী সরকারী কলেজের মনোবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক সেলিম হাসানের বিরুদ্ধে। দীর্ঘদিন যাবত গত ২৭ শে জুন ২০১৬ হতে চাঁপাই নবাবঞ্জ সদর উপজেলার পশ্চিমবাগডাঙ্গা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত আছে।

এরই মধ্যে তিনি উপর মহলে গোপন রেখে মনোবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক (৩য় শিক্ষক) হিসেবে নিয়োগ নিয়ে শিক্ষকের কোটা পুরন করে প্রতিষ্ঠান থেকে সুযোগ সুবিধা ভোগ করছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কিছু কলেজ শিক্ষক জানান, কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুর রহমান ক্ষমতার দাপটে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত থাকার পরেও নিজ শ্যালক সেলিম হাসানকে কলেজে মনোবিজ্ঞানের প্রভাষক হিসেবে নিয়োগ দেন। দুলাভাই অধ্যক্ষ হওয়ার সুযোগে যোগসাজস করে কলেজে নাম মাত্র মনোবিজ্ঞান বিষয়ের প্রভাষক পদে থেকে একই সাথে দুই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চাকুরী করে সুযোগ সুবিধা ভোগ করছেন।

এতে প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষার মান দারুনভাবে বিঘ্নিত হচ্ছে। এমনকি কলেজ জাতীয়করণের সময় ৩য় শিক্ষক হিসেবে কাগজ পত্র মন্ত্রনালয়ে পাঠিয়েছে। শিক্ষার্থীরা ক্লাশে মনোবিজ্ঞানের শিক্ষক না পেয়ে প্রাইভেট কোচিংয়ের জন্য দিগবিদিগ ছুটাছুটি করতে বাধ্য হচ্ছে।

এ বিষয়ে দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের দৃষ্টি অাকর্ষন করা হচ্ছে। এ বিষয়ে গোদাগাড়ী সরকারী কলেজের উপঅধ্যক্ষ ইমরুল হক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, সেলিম হাসান গোদাগাড়ী সরকারী কলেজে মনোবিজ্ঞান বিষয়ে প্রভাষক পদে দীর্ঘদিন ধরে চাকুরি করে আসছেন। তার এই কর্মস্থলে সঠিক ভাবে আসেনা কারণ সে অন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চাকুরী করে।

এ বিষয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা শিক্ষা অফিসার নাজমা খাতুন বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদরে গত ২৭ শে জুন ২০১৬ থেকে উপজেলার পশ্চিমবাগডাঙ্গা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত আছে। তবে অন্য কোন প্রতিষ্ঠানে চাকুরী করে কিনা আমার জানা নাই। থাকলে তা বেআইনি।

গোদাগাড়ী উপজেলা শিক্ষা অফিসার শামসুল কবীর জানান, একই ব্যাক্তি একই সাথে দুই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চাকুরী করার কোন বিধান নেই। যদি কারো বিরুদ্ধে এ ধরনের অভিযোগ প্রমানিত হয় তবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের করবে শিক্ষা অধিদপ্তর। কলেজ শিক্ষক সেলিম হাসানের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করে পাওয়া যায়নি।

বিডি২৪লাইভ/এসএস

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: