প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত

সম্পাদনা: মামুন কবীর

ডেস্ক কন্ট্রিবিউটর, বিডি২৪লাইভ

ছিটকে পড়া সেই শিশুটি মায়ের কোলে আর ফিরল না 

৩০ আগস্ট, ২০১৮ ১০:৩৬:০৩

ছবি: সংগৃহীত

মর্মান্তিক! এমনভাবে আদরের সন্তানকে হারাতে হবে কল্পনাও করা যায় না। মায়ের সোহাগ মাখা আদর দিয়ে আপন সন্তানকে কোলে নিয়ে পথ চলতে চলতে হঠাৎ বিভিষীকাময় চিত্র। কোল থেকেই আদরের সন্তানকে হারাতে হলো নিষ্ঠুর ঘাতক বাসের চাপায়।

একের পর এক মায়ের কোল খালি হচ্ছে বেপরোয়া বাস চালকদের দৌরাত্বে। কিছুতেই থামছে না বেপরোয়া বাসের ধাক্কা। প্রতিদিনই খালি হচ্ছে মায়েদের বুক। শিশুরা এখন আর মায়ের কোলে থেকেও রক্ষা পায় না। মায়ের কোল থেকে ছিটকে পড়েও বাসের চাকার নিচে যেতে হয় শিশুদের!

কুষ্টিয়া শহরে বাসের ধাক্কায় মায়ের কোল থেকে রাস্তায় ছিটকেপড়া এক বছরের শিশু আকিফা মায়ের বুক খালি করে অবশেষে চলেই গেল (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

বৃহস্পতিবার (৩০ আগস্ট) ভোরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তার মৃত্যু হয়। শিশু আকিফা কুষ্টিয়া শহরের চৌড়হাসের সবজি ব্যবসায়ী হারুন-উর রশিদের মেয়ে।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার (২৮ আগস্ট) বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে চৌড়হাস বাস স্ট্যান্ড এলাকায় এ মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে। কুষ্টিয়া শহরের চৌড়হাস মোড়ে দাঁড়িয়ে থাকা বাসের সামনে দিয়ে শিশু আকিফাকে কোলে নিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন মা রিনা বেগম। হঠাৎ চালক বাসটি চালিয়ে রিনা বেগমকে পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। এতে তার কোল থেকে রাস্তায় ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হয় শিশু আকিফা।

মঙ্গলবার (২৮ আগস্ট) দুপুরে এমন দুর্ঘটনার ভিডিওচিত্র ফেসবুকে ভাইরাল হলে তোলপাড় সৃষ্টি হয় জেলাজুড়ে। ফরিদপুর থেকে রাজশাহীগামী গঞ্জেরাজ নামে বাসটি দ্রুত পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা মা-মেয়েকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে শিশুটির অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে সন্ধ্যায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়।

কুষ্টিয়া জেলা পুলিশের সিসি ক্যামেরায় দেখা গেছে, রাজশাহী থেকে ছেড়ে আসা ফরিদপুরগামী (ঢাকা মেট্রো-গ ১৪-০১৭৭) একটি যাত্রীবাহী বাস চৌড়হাস বাসস্টান্ডে দাঁড়িয়ে ছিল। এসময় শিশু আফিয়াকে (১) কোলে নিয়ে তার মা বিনা বেগম রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন। হঠাৎ যাত্রীবাহী বাসটি বিনা বেগমকে ধাক্কা দেয়। এতে কোলে থাকা শিশু আফিয়া রাস্তায় ছিটকে পড়ে। এসময় বাসটি শিশুটিকে চাপা দিয়ে চলে যায়। বাসের ধাক্কায় আহত হন শিশু ও মা। পরে আশপাশের লোকেরা এসে শিশুটিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

শিশুটিকে উদ্ধারকারী শ্রমিক নেতা রাসেল জানান, বাসটি মা-মেয়েকে ধাক্কা দেয়ার সময় বাসের যাত্রীরাই চিৎকার দিয়ে ওঠেন। তবে কোনো কিছুর তোয়াক্কা না করে ধাক্কা দিয়ে দ্রুত বাসটি চলে যায়। এ সময় অন্যরা বাসটিকে ধাওয়া করেও আটকাতে ব্যর্থ হয়।

কুষ্টিয়া নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের সভাপতি কেএম জাহিদ জানান, অদক্ষ চালকের কারণেই সড়কে ঘটে চলেছে এমন দুর্ঘটনা। এখনই সংশ্লিষ্ট বিভাগকে এর লাগাম টেনে না ধরলে আরও ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটতে থাকবে।

বিডি২৪লাইভ/এমকে

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: