প্রচ্ছদ / ভারত / বিস্তারিত

পুলিশ কর্মকর্তা মেয়ে যখন বাবার চেয়ে বড়!

০৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১০:৩৪:৩২

ছবি: সংগৃহীত

সন্তানের সাফল্য সবচেয়ে বেশি কে খুশি হন? এমন উত্তর সবার জানা। বাবা-মা। আর তাই একজন বাবার কাছে সব থেকে খুশির এবং গর্বের বিষয় তার সন্তান যখন জীবনে সাফল্য অর্জন করে এবং তাঁদের থেকেও এগিয়ে যায়।

তেমনি এক সাফলের এক বাবা তার মেয়েকে স্যালুট করলেন। এমনি এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন ভারতের তেলেঙ্গানা শহরের এক পুলিশ বাবা। বিগত ৩০ বছর ধরে পুলিশে চাকরি করছে তিনি। আর তার মেয়ে কেবর ৪ বছর হল এ ফোর্সে যুক্ত হয়েছে।

তবে এতোদিন তাদের সামনাসামনি দেখা হয়নি। তবে হঠাৎ করে গত রবিবার যখন সামনাসামনি হলেন বাবা-মেয়ে, তখন মেয়েকে স্যালুট করলেন বাবা।

ঘটনাটি ঘটেছে তেলেঙ্গানার জগতিয়াল জেলার এসপি সিন্ধু শর্মা এবং তাঁর বাবা ডেপুটি কমিশনার অব পুলিশ এআর উমেশ্বরা শর্মার মধ্যে মেয়ে সিন্ধু শর্মা সুপারিন্টেডেন্ট অব পুলিশ (এসপি) আর ঘটনাচক্রে পদের দিক থেকে বাবার সিনিয়র সে। সে ২০১৪ ব্যাচের আইপিএস।

তেলেঙ্গানা রাষ্ট্র সমিতির কোংগারা কালন এলাকাতে একটি সমাবেশে বাবা-মেয়ে সামনাসামনি হন, তখনই মেয়েকে স্যালুট জানান তাঁর বাবা।

এ বিষয়ে উমেশ্বরা শর্মা জানান, মেয়ে সামনে এলেই তিনি স্যালুট করেন এবং মেয়ের নির্দেশ মতোই কর্তব্য পালন করেন।আবার বাড়িতে এলে আবার ছবিটা অন্যরকম। বাবার আদরের মেয়ের সঙ্গে সময়টা কাটে আর পাঁচটা পরিবারের মতোই। আর মেয়ের এই সাফল্যে গর্বিত উমেশ্বরা।

উল্লেখ্য, সিন্ধু শর্মা গত রবিবার তেলেঙ্গানাতে টিআরএস-এর একটি সমাবেশে মহিলাদের সুরক্ষার দায়িত্বে ছিলেন। সেখানেই ডিউটি ছিল বাবা উমেশ্বরা শর্মার৷ ওই ব়্যালিতে প্রায় ২০ লক্ষেরও বেশি মানুষ হাজির হয়েছিল। মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রশেখর রাওসহ টিআরএসের বড় বড় নেতারা সেখানে উপস্থিত ছিলেন৷ সে সমাবেশেই মুখোমুখি হন এই বাবা-মেয়ে।

বিডি২৪লাইভ/এএইচ

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: