প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত

মোঃ সাইফুল ইসলাম

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

শপথ নিলেন দুই মেয়র

০৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৩:২৭:০০

ফাইল ফটো

রাজশাহী ও সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে জয়ী জনপ্রতিনিধিরা দায়িত্ব গ্রহণের জন্য শপথ নিয়েছেন। বুধবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এই শপথ পাঠ অনুষ্ঠান হয়।

রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র আওয়ামী লীগ নেতা এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন এবং সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র বিএনপির আরিফুল হক চৌধুরীকে শপথ পাঠ করান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গত ৩০ জুলাই ভোটের এক মাস পর আজ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে তাদের শপথ পড়ান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন, প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা। স্থানীয় সরকার সচিব ড. জাফর আহমেদ খানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের প্রমুখ।

একই দিন শপথ পড়েন দুই সিটির নির্বাচিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর এবং সংরক্ষিত নারী আসনের কাউন্সিলররাও। তাদের শপথ পড়ান স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

গত ৩০ জুলাই রাজশাহী এবং সিলেট সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। রাজশাহীর নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে হারিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো মেয়র হন আওয়ামী লীগ নেতা এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। লিটন এক লাখ ৬৫ হাজার ৩৩২ ভোট পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হন।

অন্যদিকে গত ৩০ জুলাই সিলেট সিটি নির্বাচনে ১৩৪ কেন্দ্রের মধ্যে অনিয়মের কারণে দুটির ভোটগ্রহণ স্থগিত করেছিল নির্বাচন কমিশন। সেদিন ১৩২ কেন্দ্রে আরিফুল হক চৌধুরী ৯০ হাজার ৪৯৬ ভোট পান। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরান ৮৫ হাজার ৮৭০ ভোট পান। কিন্তু ভোটে কামরানের চেয়ে এগিয়ে থাকলেও স্থগিত কেন্দ্র দু’টির ভোটের চেয়ে ১৬১ ভোটে পিছিয়ে ছিলেন আরিফ।

গত ১১ আগস্ট স্থগিত দু’টি কেন্দ্রের পুনরায় নির্বাচন শেষে আরিফুল ৬ হাজার ১৯৬ ভোটে কামরানকে পেছনে ফেলে বিজয়ী হন। ১৩৪টি কেন্দ্রের ফলাফলে ৯২ হাজার ৫৯৮ ভোট পান আরিফুল। আর কামরান পান ৮৬ হাজার ৩৯৭ ভোট।

বিডি২৪লাইভ/ওয়াইএ

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: