প্রচ্ছদ / ভারত / বিস্তারিত

ফের ওপার বাংলায় সেতু ধস!

০৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১১:০৬:৩৫

ছবি: সংগৃহীত

গত মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে চারটার দিকে যখন ব্যস্ত নগরীর চারদিক থেকে গাড়ির ভোঁ ভোঁ শব্দ কানে আসছে ঠিক সে সময়ে শহরের বুক কাঁপিয়ে ভেঙে পড়ে সেতু। ঘটনাটি ঘটে কলকাতার দক্ষিণ শহরতলীর মাঝেরহাট এলাকায়। সেতুর ভাঙা অংশের সঙ্গেই নিচে পড়ে যায় একটি মিনিবাস, তিনটি প্রাইভেট কার, দুটি অ্যাপ ক্যাব এবং দুটি বাইক।

বলা হচ্ছে, ওই দুর্ঘটনায় পাঁচজন মারা গেছেন। একইসঙ্গে বহু মানুষের মৃত্যুর আশঙ্কাও করা হচ্ছে।

মাঝেরহাটের সেই রেশ কাটতে না কাটতেই আবারও ভেঙে পড়েছে একটি সেতু। শিলিগুড়ির ফাঁসিদেওয়ার এলাকায় একটি ট্রাক নিয়ে ভেঙে পড়ে সেতুটি। এ দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন ট্রাকের চালক। ট্রাকটি এখনও ভেঙে পড়া সেতুটিতে ঝুলন্ত অবস্থায় রয়েছে। তবে এ ঘটনায় এখনও কারো নিহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি।

শুক্রবার (৭ সেপ্টেম্বর) সকালের দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থলটি পরিদর্শন করেছে পুলিশ।

এদিকে স্থানীয়রা অভিযোগ করেছে, দীর্ঘদিন ধরেই বেহাল অবস্থায় ছিল সেতুটি। কোনও প্রকারের মেরামতের উদ্যোগও নেওয়া হয়নি। যার ফলেই এত বড় দুর্ঘটনা ঘটেছে।

সূত্র মতে, চটহাট এবং ফাঁসিদেওয়ার মধ্যে যোগাযোগকারী একমাত্র সেতু এটি। কৃষি প্রধান এই এলাকার লোকজন ভীষণভাবে এই সেতুর উপর নির্ভরশীল। সেক্ষেত্রে এই সেতু ভেঙে পড়ায় চিন্তা বেড়েছে এলাকার লোকজনের।

এর আগে গত আচমকা ভেঙে পড়া মাঝেরহাটের সেতুটি এখনও শোরগোল চলছে রাজ্যজুড়ে। মুখ্যমন্ত্রী এ নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে বৈঠক করে জানান, এ শহরে এমন আরও অনেকগুলি সেতু রয়েছে যেগুলোর অবস্থা বিপজ্জনক।

তবে সূত্র বলছে, শুধু কলকাতা শহরই নয় জেলাগুলোতেও এমন বহু সেতু রয়েছে যেগুলোর অবস্থা অত্যন্ত খারাপ। যেকোনও সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে।

স্থানীয়রা জানায়, আজ যে সেতুটি ভেঙে পড়ল সেখানে খুব বেশি ওজন নিয়ে যান চলাচল করে না। বরং নিয়ম করে যদি রক্ষণাবেক্ষণ করা যেত তবে এমনটা হত না।

বিডি২৪লাইভ/এএইচ/ওয়াইএ

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: