প্রচ্ছদ / ভারত / বিস্তারিত

‘ওপার বাংলার সেতু ধসে বাংলাদেশিরা দায়ী’

৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ , ১২:৪৫:২৮

ছবি: সংগৃহীত

গত মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে চারটা। ব্যস্ত নগরী, চারদিক থেকে কানে আসছে গাড়ির শব্দ। ঠিক সে সময়ে শহরের বুক কাঁপিয়ে ভেঙে পড়ল সেতু। কলকাতার দক্ষিণ শহরতলীর মাঝেরহাট ব্রিজ। সেতুর ভাঙা অংশের সঙ্গেই নিচে পড়ে যায় একটি মিনিবাস, তিনটি প্রাইভেট কার, দুটি অ্যাপ ক্যাব এবং দুটি বাইক।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ঘটনাস্থলে যান রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠী। তিনি বলেন, ‘এই সেতুটির রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বে ছিল পূর্ত দফতর ও রেল। আমি জানি না, তারা এই সেতুটির পরিস্থিতি সম্বন্ধে ওয়াকিবহাল ছিল কি না। ঘটনার তদন্তে সব স্পষ্ট হবে।’

কিন্তু এ ঘটনার জন্য বাংলাদেশ থেকে আসা অনুপ্রবেশকারীদের দায় করলেন ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির পশ্চিমবঙ্গের সভাপতি দিলীপ ঘোষ। মাঝেরহাট সেতু ধসে পড়ার পর হঠাৎ করেই দিলীপ ঘোষের এ ধরনের উদ্ভট কথায় অনেকেই অবাক হয়েছেন।

বাংলাদেশ থেকে আসা অনুপ্রবেশকারীদের দায় করে দিলীপ বলেন, ‘কলকাতার সব সেতুর নিচে বাংলাদেশ থেকে আসা অনুপ্রবেশকারীরা থাকেন। ওনারা রান্না করেন, তাতে ধোঁয়া হয় আর এইজন্য সেতু দুর্বল হয়ে যায়।’

তিনি বলেন, ‘আমি তাই বারবার বলছি বাংলাতেও এনআরসি (নাগরিকত্বের তালিকা) দরকার। সেতু ভেঙে পড়ার জন্য বাংলাদেশ থেকে আসা অনুপ্রবেশকারীদের দোষ দেওয়া যায়।’

অনুপ্রবেশকারীদের দায় করে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তিনি আরও বলেন, ‘কলকাতা ও শহরতলির আশেপাশে সরাসরি জমি দখল করে বসে আছে এইসব অনুপ্রবেশকারীরা। তাদের এনআরসি ছাড়া আর কোনো উপায় নেই।’

এর আগেও তিনি ধরনের বেফাঁস মন্তব্য করে বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন।

তবে তার এ মন্তব্যে একজন আমলা বলেন, ‘এত হাস্যকর ব্যাপার কী করে উনি বললেন বুঝতে পারছি না।’

বিডি২৪লাইভ/এএইচ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: