জোহরের আজানের পর কি ভিক্ষা দেওয়া যায় না?

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:৫৩:০০

ছবি : প্রতীকী

লোকমুখে নানান কথা নানান সময়ে ছড়িয়ে পড়ে। যা ভিত্তিহীন হলেও আমাদের দৈনন্দিন জীবনে ব্যাপক প্রভাব বিস্তার করে। এমন একটি জোহরের আজানের পর ভিক্ষা দেওয়া যায় না।

কিন্তু বাস্তবে এ কথার কোন ভিত্তি নেই ইসলামে। এমনটাই জানিয়েছেন বিশিষ্ট আলেম ড. মুহাম্মদ মতিউল ইসলাম।

একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের ইসলাম বিষয়ক প্রশ্নোত্তর অনুষ্ঠান ‘আপনার জিজ্ঞাসা’য় রাতুল নামের এক ব্যক্তির প্রশ্নের জবাবে মতিউল ইসলাম বলেন, না, আসলে এগুলোর কোনো দলিল ইসলামে নেই। সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন কথা। এগুলো আমরা বলব না এবং আমলও করব না। এসবই লোকমুখে শোনা কথা, প্রচলিত কথা।

প্রসঙ্গত, নামায, নামাজ বা সালাত হল ইসলাম ধর্মের প্রধান উপাসনাকর্ম। প্রতিদিন ৫ ওয়াক্ত (নির্দিষ্ট নামাযের নির্দিষ্ট সময়) নামাজ আদায় করা প্রত্যেক মুসলিমের জন্য আবশ্যক বা ফরজ। নামায ইসলামের পঞ্চস্তম্ভের একটি। শাহাদাহ্‌ বা বিশ্বাসের পর নামাযই ইসলামের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ স্তম্ভ।

যোহরের নামাজ মুসলিমদের অবশ্য পালনীয় দৈনিক পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের অন্যতম। নামাজ ইসলামের পাঁচটি স্তম্ভের অন্যতম। দৈনিক নামাজগুলোর মধ্যে এটি দ্বিতীয়। এটি দুপুরের সময় আদায় করা হয়।

যোহরের নামাজ চার রাকাত সুন্নত, চার রাকাত ফরজ ও এরপর দুই রাকাত সুন্নত নিয়ে গঠিত। কেউ কেউ পরে দুই রাকআত নফল নামাজ আদায় করে। ফরজ অংশ ইমামের নেতৃত্বে জামাতের সাথে আদায় করা হয়। তবে ব্যক্তি মুসাফির অবস্থায় থাকলে চার রাকাত ফরজকে সংক্ষিপ্ত করে দুই রাকাত করতে পারে ও সুন্নত আদায় না করতে পারে।

শুক্রবার যোহরের পরিবর্তে জুমার নামাজ আদায় করা হয়। জুমা ও যোহরের সময় শুরু ও শেষ হওয়ার নিয়ম একই।


বিডি২৪লাইভ/এইচকে

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: