প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

তিন মাসেই প্রেমিকের বিছানায় প্রেমিকা, এরপর...

২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ , ০২:২৫:০০

ছবি : প্রতীকী

রাজশাহীর বাঘা উপজেলায় বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন করছেন এক তরুণী। তবে প্রেমিকা বাড়িতে আসার পর পালিয়েছে প্রেমিক।

বৃহস্পতিবার (২০ সেপ্টেম্বর) বিকেল থেকে শনিবার (২২ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত প্রেমিকের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অবস্থান করছেন।

এ বিষয়ে তরুণীর বাবা থানায় অভিযোগের পরও কোন ব্যবস্থা নেয়নি বাঘা থানা পুলিশ। বিয়ে না করলে তরুণী আত্মহত্যারও হুমকি দিয়েছেন। ফলে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন তরুণীর পরিবার।

জানা গেছে, অভিযুক্ত প্রেমিক আড়ানী পৌরসভার গোচর গ্রামের আকরাম আলীর ছেলে নাসিম উদ্দিন (২২)।

অনশনরত তরুণী জানান, গত প্রায় ৩ মাস ধরে নাসিমের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিয়ের প্রলোভন দিয়ে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে সে। এমনকি সে নিয়মিত আমার বাড়িতে যাতায়াত করতো। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে তার বাড়িতে আসলে বিয়ে করতে রাজি হয়। পরে কৌশলে আমাকে রেখে বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। তারপর থেকে বিয়ের দাবিতে নাসিমের বাড়িতে অবস্থান করছি। নাসিম বিয়ে না করলে আত্মহত্যা করা ছাড়া আর কোন পথ নেই।

স্থানীয়রা জানান, এই তরুণী তার বাড়িতে আসার পর কৌশলে পালিয়েছে নাসিম। তারপর থেকে তাকে খোঁজ করে পাওয়া যাচ্ছে না। তবে তরুণীর ৪ বছর আগে অন্য এক জায়গায় বিয়ে হয়। তার ওই সংসারে স্বামী ও ৩ বছরের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে বলেও জানায় তারা।

এ ব্যাপারে মেয়ের বাবা বাঘা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে নাসিমের বাবা-মাকে অনশনরত মেয়ের সঙ্গে ছেলের বিয়ে দেয়ার তাগিদ দিয়ে চলে যান।

ছেলের বাবা আকরাম হোসেন বলেন, আমি স্থানীয়দের বলেছি, ছেলেকে ধরে এনে বিয়ে দেয়ার জন্য। এতে আমার কোন আপত্তি নেই। তবে ছেলেকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

আড়ানী পৌরসভার কাউন্সিলর জিল্লুর সরদার বলেন, উভয়ে আমাকে ঘটনাটি জানিয়েছে। আমি সমঝোতা করার চেষ্টা করছি। তবে ছেলে পলাতক থাকায় এখন পর্যন্ত কোন সমঝোতা করা সম্ভব হয়নি।

বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহসীন আলী বিডি২৪লাইভকে বলেন, এ বিষয়ে অভিযোগ পাওয়ার পর ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছিলাম। ছেলের পরিবারকে খুব শীঘ্রই সমঝোতা করে নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

বিডি২৪লাইভ/টিএএফ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: