সম্পাদনা: মামুন কবীর

ডেস্ক কন্ট্রিবিউটর, বিডি২৪লাইভ

অন্য ধর্মের লোকদের সালাম দেওয়া কি জায়েজ?

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৬:৪৬:২৭

ছবি: প্রতীকী

সালাম শান্তির প্রতীক। ইসলামে সালাম দেওয়া সুন্নত। উত্তর দেওয়া ওয়াজিব। একজন মুসলমান অপর মুসলমানকে সালাম দিবে এটা স্বাভাবিক এবং উত্তম সৌজন্যতার প্রতীক কিন্তু যদি অপর কোন ধর্মের হয়ে থাকে তাহলে তার বিধান কি?

বিশিষ্ট আলেম ড. মুহাম্মদ সাইফুল্লাহ এই প্রশ্নের জবাবে বলেন, না, অন্য ধর্মের লোকদের জন্য সালামের বিধান প্রযোজ্য না।

ইসলাম ধর্ম ছাড়া অন্য ধর্মের লোকদের ক্ষেত্রে সামাজিক সৌজন্যতার জন্য তার ধর্মের রীতিই বৈধ হতে পারে। অন্যথায় তাঁকে শুধু সৌজন্য আচরণের মাধ্যমে স্বাগত জানানো যেতে পারে।

হিন্দু ধর্মের ভাইদের সম্বোধন করে ‘নমস্কার’ বলা যেতে পারে যদিও শব্দটি কঠিন। সহজ হিসেবে ‘আদাব’ বলা যেতে পারে, এটি শিষ্টাচারের মতো, এখানে অতিরিক্ত কিছুই নেই। তাদের যেই সৌজন্য, সেটি করা যায়।

অথবা সৌজন্যবশত অন্য কোনো আচরণ করা যায়, যেমন : শুভ সকাল, শুভ সন্ধ্যা। কারণ এগুলোর মধ্যে হারাম শব্দ নেই, হারাম কোনো বিষয় নেই, এখানে তাদের সংস্কৃতির বিষয় এসে যায়। সেটি যদি সামাজিক কোনো কারণে প্রয়োজন হয়, তাহলে করা যাবে।

যদি অন্য ধর্মের কেউ কোন মুসলমান ভাইকে সালাম দেয়, তাহলে অবশ্যই তার জবাবে ‘ওয়ালাইকুম’ বলা উত্তম। এটি জায়েজ রয়েছে।

বিডি২৪লাইভ/এমকে

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: