প্রচ্ছদ / রাজনীতি / বিস্তারিত

সম্পাদনা: খায়রুল ইসলাম রাজিব

ডেস্ক এডিটর

নিজ বাসভবনে সংবাদ সম্মেলনে

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে যেতে বি. চৌধুরীর দুই শর্ত

১৩ অক্টোবর, ২০১৮ ২২:৩৯:১২

দুই শর্ত পূরণ হলে সদ্য গঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে যেতে আগ্রহী বলে জানিয়েছেন বিকল্পধারার সভাপতি একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী (বি. চৌধুরী)।

তিনি বলেন, স্বাধীনতা বিরোধীদের সঙ্গে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে যে ঐক্য প্রক্রিয়া চলছে তার সঙ্গে বিকল্প ধারা থাকবে না। এছাড়া সংসদে ভারসাম্য এবং স্বেচ্ছাচারিতা বন্ধ করতে নিজ দলের জন্য ১৫০ আসন দাবি করেন তিনি।

শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর বারিধারায় নিজ বাসভবনে সংবাদ সম্মেলন করে একথা বলেন বি. চৌধুরী।

ড. কামাল হোসেনের আমন্ত্রণে তার বাসায় গিয়ে সেখান থেকে ফিরে এসে বি. চৌধুরী হতাশ হয়েছেন বলেও জানান তিনি।

জনগণকে ধোঁয়াশায় রেখে বিএনপির সঙ্গে বিকল্পধারা আর কোনো বৈঠকের সুযোগ দেবে না উল্লেখ করে বি. চৌধুরী বলেন, ‘বিএনপিকে এককভাবে ক্ষমতায় বসানোর চক্রান্তে বিকল্পধারা নেই।’

বি চৌধুরী বলেন, ‘বীর মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমানের দলকে স্বাধীনতাবিরোধীদের হাত থেকে রক্ষা করতে এবং জনগণের ইচ্ছার প্রকাশ ঘটাতে স্বাধীনতাবিরোধীদের বাদ দিয়ে জাতীয় ঐক্য গড়তে বিকল্পধারা অনড়।’

এর আগে জামায়াতে ইসলামকে নিয়ে চার দলীয় জোটের সময় বি চৌধুরী বিএনপিতে ছিলেন। তখন কোনো সমস্যা হয়নি? এখন কেন এতো সমস্যা। এমন প্রশ্নের জবাবে চুপ ছিলেন সাবেক এই রাষ্ট্রপতি।

বিকল্পধারাকে কী বাদ দিয়েছে, নাকি তারা সরে এসেছে? এমন প্রশ্নের জবাবে মাহী বি চৌধুরী বলেন, আমরা ঐক্য প্রক্রিয়া থেকে এখনও সরে আসি নাই। ওনারা যদি বাদ দিয়ে থাকেন সেটা তারা ঘোষণা দিবেন। স্বাধীনতাবিরোধীদের বাদ দিয়ে ভারসাম্যের রাজনীতিতে আমরা বিশ্বাসী। এমনটা জাতির চাওয়া, সেই স্বপ্ন আমরা দেখি।

জাতীয় প্রেস ক্লাবের অনুষ্ঠানে দাওয়াত পায়নি কিংবা যায়নি? এ জন্য তারা কী ব্যথিত? এমন প্রশ্নের জবাবে মাহী বলেন, ‘রাজনীতিতে এতো তাড়াতাড়ি ব্যথিত হওয়া যায় না।’

ড. কামাল বলেছিলেন বি. চৌধুরীসহ যারা যারা আসেন নাই তারা জলদি আসবেন। এমন কথার উত্তরে বি চৌধুরী বলেন, ‘আমরা অপেক্ষায় আছি তারা আসবেন।’

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ৭টি দাবি ১১টি লক্ষ্য বিকল্পধারার সঙ্গে আলোচনা করা হয়েছিল কিনা? জবাবে তিনি বিলেন, ‘আমাদের সঙ্গে কিছু কিছু আলোচনা করা হয়েছিল। তখন ৫টি দাবি ছিল।’

সংবাদ সম্মেলনে বিকল্প ধারা মহাসচিব আব্দুল মান্নান, যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি. চৌধুরী, অন্যদের মধ্যে দলটির কেন্দ্রীয় নেতা মাহবুব আলী, ওমর ফারুক, হাফিজুর রহমান ঝান্টু, ওবায়েদুর রহমান মৃধা, আসাদুজ্জামান বাচ্চু, বিএম নিজাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বিডি২৪লাইভ/আরআই

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: