আরেফিন আল ইমরান

ডেস্ক কন্ট্রিবিউটর

নতুন সুযোগ পেয়ে কেমন করবেন ফজলে রাব্বি?

১৪ অক্টোবর, ২০১৮ ১২:৫৯:৩৮

ছবি: সংগৃহীত

৩০ বছর বয়সে জাতীয় দলে ডাক পেয়েছেন ফজলে রাব্বি। এই বয়সেও দারুণ ফিটনেস তার। ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি বাঁ-হাতি বোলিংটাও বেশ কার্যকর। সব মিলিয়েই সাকিব আল হাসানের বিকল্প ধরা হয়েছে রাব্বিকে। ঘরোয়া লিগে তার পারফর্ম্যান্স যথেষ্ট ভালো। দীর্ঘদিন লিগে খেলার অভিজ্ঞতাও রয়েছে ফজলে রাব্বির। ফলে তাকে ঘিরে দলের প্রত্যাশা থাকবে অনেক।

এ বিষয়ে সহকারী নির্বাচক হাবিবুল বাশার বলেন, ‘সাকিব নেই। ফলে আমাদের এমন একজন প্রয়োজন ছিল যে সাকিবের মতো না হলেও ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি একটু বোলিং করবে। আমরা যতটা দেখেছি তাতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি রাব্বির বোলিংও সম্প্রতি বেশ কার্যকর মনে হয়েছে।’

বয়সের দিকে লক্ষ্য রেখে হাবিবুল আরো বলেন, ‘আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার শুরুর জন্য বয়সটা হয়তো বেশি হয়ে গেছে। আমরা এরকম খুব কম দেখি। তবে ওর (রাব্বি) ফিটনেস খুব ভালো। এখনকার বাস্তবতা বিবেচনায় খুব বেশিও বয়স নয়। সামনে অনেক সময় পড়ে আছে। আশা করি ও আমাদের প্রত্যাশা পূরণ করতে পারবে।’

ধারাবাহিক ফর্মের জন্য বেশ কিছুদিন ধরেই নির্বাচকরা তার ওপর চোখ রেখেছেন। এশিয়া কাপের প্রাথমিক দলেও ছিলেন, কিন্তু চূড়ান্ত দলে জায়গা হয়নি রাব্বির। এবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজে চূড়ান্ত দলে ঠাঁই হল রাব্বির। তার সক্ষমতা নিয়ে হাবিবুল বাশার বলেন, ‘সে এখন অনেক পরিণত ব্যাটসম্যান। পাশাপাশি ভালো ফিল্ডার, সঙ্গে স্পিন বল করতে পারে। সব মিলিয়ে আমাদের জন্য দারুণ একটা প্যাকেজ বলা চলে। ওর খেলা আগেও তো দেখেছি। এখন অনেক বেশি পরিণত। এটাই ওকে নেয়ার ক্ষেত্রে বেশি প্রভাব ফেলেছে।’

সাকিব আল হাসানের অভাব পূরণ করা সহজ কথা নয়। টাইগার দলে সাকিব এক অপরিহার্য নাম। সে তুলনায় ফজলে রাব্বি একেবারেই নতুন। তারপরও নিজের সহজাত খেলাটা খেলতে পারলে আন্তর্জাতিক পরিসরে ভালো কিছুর আশা করতেই পারেন তিনি। ব্যাটিংয়ে তার ডেপথ রয়েছে ব্যাপক। সেই সাথে কাজের সময় বোলিংয়েও সাপোর্ট দলকে সাপোর্ট দেয়ার সামর্থ রয়েছে তার। সবমিলিয়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ফজলে রাব্বি কেমন করেন, তা জানতে উন্মুখ থাকবেন বাংলাদেশের সমর্থকরা।

বিডি২৪লাইভ/এএআই

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: