আরেফিন আল ইমরান

ডেস্ক কন্ট্রিবিউটর

আঙুলের সর্বশেষ অবস্থা জানিয়ে যা বললেন সাকিব

১৪ অক্টোবর, ২০১৮ ১৪:২৬:০৫

ছবি: সংগৃহীত

চিকিৎসাশেষে অস্ট্রেলিয়া থেকে দেশে ফিরেছেন সাকিব আল হাসান। আঙুলের চিকিৎসার জন্য সেখানে গিয়েছিলেন বাংলাদেশ দলের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক। ফেরার পর জানিয়েছেন আঙুলের সর্বশেষ অবস্থা।

আশাবাদ জানিয়ে সংবাদিকদের সাকিব বলেন, 'এখন বেশ ভালো আছি। ইনফেকশনটাও নিয়ন্ত্রণেই রয়েছে। তবে প্রতি সপ্তাহে রক্ত পরীক্ষার মাধ্যমে ইনফেকশনের অবস্থা জেনে নিতে হবে। ইনফেকশন বাড়লো কিনা বা নতুন কোনো সমস্যা দেখা দিলো কি-না। তবে এটুকু বলতে পারি এখনও পর্যন্ত ইনফেকশন নিয়ন্ত্রণেই আছে। চিন্তার কিছু নেই। আঙুলের অবস্থা এখন খুবই ভালো। কোনো সমস্যা অনুভব করছি না। শুধু সময়ের ব্যাপার কতদিনে আমার আঙুলের শক্তি ফিরে আসে।'

এর আগে, সাকিবের কথায় হিম শীতল আতঙ্ক নেমে এসেছিল দেশের ক্রিকেটপ্রেমী মানুষের মনে। অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার আগে সাকিব জানিয়েছিলেন, “তার আঙুল আর আগের অবস্থায় হয়ত ফিরবে না।” এই কথায় ক্রিকেটপাড়ায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার কবে আবার মাঠে নামতে পারবেন, এই আশঙ্কায় ছিল সবাই।

তবে এখন আশার বাণী শুনালেন সাকিব। বললেন, 'আঙুলের সার্জারি ৬ থেকে ১২ মাসের মধ্যে করা যাবে না। কারণ ইনফেকশন যদি হাড়ের ভেতরে থেকে থাকে সেটা আসলে সরার সম্ভাবনা নেই। কারণ ওখানে রক্ত পৌঁছায় না। যেহেতু অ্যান্টিবায়োটিকরা রক্তের মাধ্যমে ছড়ায়, যেখানে ব্লাড যায় না সেখানে অ্যান্টিবায়োটিক কীভাবে কাজ করবে। তাই ইনফেকশনের ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়ার জন্য ৬ থেকে ১২ মাসের মধ্যে কোনো সার্জারি করা যাবে না। তবে ভালো ব্যাপার হচ্ছে সার্জারি না করেও হয়তো খেলা সম্ভব হতে পারে। এখন যেহেতু সার্জারি করার সুযোগ নেই, তাই আমি বলেন বা ফিজিওর পরামর্শে বলেন চিন্তা করা হচ্ছে যে সার্জারি বাদে কিভাবে খেলা যায়।'

খেলায় ফিরতে মরিয়া সাকিব এরই মধ্যে মাঠে ফেরার জন্য কাজ শুরু করে দিয়েছেন। জানালেন সে কথাও। বললেন, আমি ইতোমধ্যে রিহ্যাব প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছি। অস্ট্রেলিয়া থাকতেই শুরু করেছি। ওখানে হ্যান্ড থেরাপিস্টকে দেখানো হয়েছে। উনি যেভাবে বলেছে সেভাবে ফলো করে করে কাজ করতে হবে। যত বেশি করা যাবে তত আমার জন্য ভালো। যত বেশি করে করে হাতের শক্তিটা আবার আনা সম্ভব সেটাই এখন মূল উদ্দেশ্য।'

বিডি২৪লাইভ/এএআই

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: