প্রচ্ছদ / রাজনীতি / বিস্তারিত

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

বিএনপির দিকে তাকিয়ে আ’লীগ-জাপা

১০ নভেম্বর, ২০১৮ ২২:৫৯:৩৬

ছবি: সংগৃহীত

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) অংশগ্রহণ করবে কি করবে না তা এখনও নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২৩ দলীয় জোট নির্বাচনে যাবে কিনা এ ব্যাপারে আগামী দুই দিনের মধ্যে সিদ্ধান্ত নেবে বলে জানিয়েছে।

এদিকে, বিএনপির অংশগ্রহণের উপর নির্ভর করছে আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি ও সরকার সমর্থক রাজনৈতিক মিত্রদের জোটগত ভাবে নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত। তাই সেদিকে তাকিয়ে আছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টিসহ অন্যরা। বিএনপির সিদ্ধান্তের পর চূড়ান্ত রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট।

রাজনীতি বিশ্লেষকরা মনে করছেন, বিএনপি নির্বাচনে না আসলে ৩০০ আসনে প্রার্থী দিতে পারে সরকারে অন্যতম প্রধান শরিক জাতীয় পার্টি। বিএনপির চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আজ শনিবার পাওয়ার কথা থাকলেও দলটি নিজেদের মধ্যে, শরিকদের সঙ্গে এবং জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে বৈঠক শেষে দুই দিনের মধ্যে সিদ্ধান্ত নেবে বলে জানিয়েছে। ফলে অপেক্ষার পালা শেষ হয়েও হল না।

তবে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর শনিবার থেকেই নির্বাচনের প্রস্তুতির আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ, মিত্র জাতীয় পার্টি ও সরকার সমর্থক রাজনৈতিক দলগুলো। যদিও ক্ষমতাসীনদের মধ্যে আসন ভাগাভাগি কী ধরনের, তা এখনো পরিষ্কার নয়।

আর এ বিষয়টি নিয়ে দলগুলোর ভেতরে একটা চাপা দ্বিধাদ্বন্দ্ব কাজ করছে। বিএনপি নির্বাচন করবে কিনা তা এখনও স্পষ্ট নয়। তাই তাদের সামনে সম্ভাব্য দুইটি পরিস্থিতি হতে পারে।

এ বিষয়ে রাজনীতি বিশ্লেষকরা মনে করছেন, বিএনপি এবার নির্বাচনে এলে অতীতের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টির মধ্যে যেভাবে আসন বণ্টন হয়েছে এবার তা নাটকীয়ভাবে বদলে যেতে পারে।

বিষয়টি নিয়ে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মুহাম্মদ ফারুক খান বলেন, পুরো বিষয়টিই নির্ভর করবে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সামনে ‘রাজনৈতিক পরিস্থিতি কেমন হয়’ তার ওপর। সংলাপের সময় ও তার পরে জাতীয় পার্টি নিজেই বলেছে বিএনপি না এলে তারা তিন’শ আসনেই নির্বাচন করবে।

তিনি আরও বলেন, যদি বিএনপি আসে তাহলে মহাজোটে থেকেই নির্বাচন করবে তারা। তাই বিষয়টি নির্ভর করছে রাজনৈতিক পরিস্থিতির ওপরই।

শেষ পর্যন্ত যদি বিএনপি নির্বাচনে আসে তাহলে জাতীয় পার্টিকে কতটি আসন দেয়া হবে এ বিষয়ে ফারুখ খান বলেন, আমরা জোট সহযোগীদের জন্য ৬০ থেকে ৭০টি আসন রেখেছি। তবে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, যার জেতার সম্ভাবনা থাকবে কেবল তাকেই বিবেচনা করা হবে।

বিডি২৪লাইভ/এএইচ

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: