খালেদা জিয়ার কাছে যে কারণে ‘দোয়া’ চাইলেন দুদকের আইনজীবী 

১৬ নভেম্বর, ২০১৮ ১১:১৬:৪৫

ছবি: ইন্টারনেট

নাইকো দুর্নীতি মামলায় অভিযোগ গঠনের ওপর পরবর্তী শুনানির জন্য আগামী বছর ৩ জানুয়ারি দিন ধার্য করেছে আদালত। এ মামলার অভিযোগ গঠনের ওপর আংশিক শুনানির পর আসামিপক্ষের সময় আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকার নবম বিশেষ জজ আদালতের বিচারক মাহমুদুল কবির ১৪ নভেম্বর, বুধবার এ দিন নির্ধারণ করেন। দেশের বিভিন্ন গণমাধ্যম এ খবর প্রকাশ করেছে।

শুনানিতে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজলকে নিয়ে টিপ্পনী কাটেন।

খালেদা জিয়া বলেন, ‘বহু গুরুত্বপূর্ণ মামলা রয়েছে, যেগুলোর বিচার দ্রুত করা হয় না।’

১৪ নভেম্বর, বুধবার এ মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানির সময় পুরান ঢাকার নাজিমুদ্দিন রোডে সাবেক কেন্দ্রীয় কারাগারে অবস্থিত ঢাকার ৯ নম্বর বিশেষ জজ মাহমুদুল কবিরের আদালতে খালেদা জিয়া এমন মন্তব্য করেন।

ঢাকা কোর্টের মহানগর দায়রা জজ আদালত ভবন ও বকশীবাজার এজলাসের কথা উল্লেখ করে খালেদা জিয়া বলেন, ‘ওখানেই তো স্বাভাবিক বিচার চলছিল। তবে এখানে বিচারের কী কারণ? এ মামলার বিচার স্বাভাবিকভাবে হচ্ছে না। অস্বাভাবিক দ্রুততায় চালানো হচ্ছে।’

শুনানির এক পর্যায়ে খালেদার জিয়ার অন্যতম আইনজীবী মাসুদ আহমেদ তালুকদার প্রতিপক্ষ দুদকের আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজলকে কটাক্ষ করে বলেন, ‘কাজল সাহেব আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন কিনেছেন। এমপি নির্বাচিত হওয়ার পর তাকে প্রতিমন্ত্রী বানিয়ে এ মামলা পরিচালনার পুরস্কার দেবে আওয়ামী লীগ।’ তার কথা টেনে খালেদা জিয়া বলেন, ‘না, তাকে ফুল মন্ত্রী করে দেবে।’

তখন দুদকের আইনজীবী কাজল খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘ম্যাডাম, আমার জন্য দোয়া করবেন।’

বিডি২৪লাইভ/এমআর

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: