ঢাবি ক্যাম্পাসে বাসের নিচে জীবন্ত নবজাতক!

২০ নভেম্বর, ২০১৮ ১৯:২০:০০

ছবি : সংগৃহীত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্জন হলের সামনে বিআরটিসি বাসের নিচ থেকে এক কন্যা নবজাতককে উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২০ নভেম্বর) দুপুর ২টার দিকে কার্জনের সামনের রাস্তায় শিক্ষার্থীদের যাতায়াতে ব্যবহৃত বিআরটিসির একটি বাসের নিচে নবজাতকটিকে পাওয়া যায়। পরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শিশুটির পরিচয় জানা যায়নি।

এ বিষয়ে ঢাবির প্রক্টর অধ্যাপক ড. গোলাম রব্বানী জানান, ঢাবি ক্যাম্পাস থেকে নবজাতক উদ্ধারের ঘটনাটি সত্যিই দুঃখজনক। এ বিষয়ে পুলিশের সহায়তায় আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শাহবাগ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) নিয়াজ উদ্দিন জানান, ধারণা করা হচ্ছে নবজাকটিকে দুপুরের দিকেই কেউ ওই বাসের নিচে ফেলে গেছে। স্থানীয় সিসি টিভির ফুটেজ দেখে কে বা কারা শিশুটিকে রাস্তায় ফেলে গেল? তার বাবা-মা কে? সে সব বিষয়ে বিস্তারিত জানতে তদন্ত চলছে।

চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক (এসআই) বাচ্চু মিয়া জানান, এক কেজি ওজনের নবজাতকটি ঢামেকের হাসপাতালে নবজাতক ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন। আনুমানিক একদিন বয়সী শিশুটির শারীরিক অবস্থা মোটামুটি ভালো বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।

নবজাতককে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যান বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা কর্মী মো. শাহিন মিয়া।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে- শাহিন মিয়া জানান, কার্জন হলের গেটের সামনে বিআরটিসির (বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্পোরেশন) বাসের নিচে ওড়না দিয়ে মোড়ানো ছিল নবজাতকটি। দুপুর ২টার দিকে হলের সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় হঠাৎ একটি দোতলা বাসের নিচ থেকে শিশুর কান্নার ভেসে আসে। পরে তিনি দ্রুত শিশুটিকে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে যান।


বিডি২৪লাইভ/এইচকে

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: