বরের বয়স ৬০, কনের ১৫

১৩ ডিসেম্বর ২০১৮ , ১০:৪৪:০০

বিয়ের পর কিশোরী বধুর সঙ্গে বর। ছবি: সংগৃহীত

বরের বয়স ৬০, কনের বয়স ১৫! এটা পড়ে নিশ্চিয় অবাক হচ্ছেন। হ্যাঁ, এমনই এক বিয়ের ঘটনা ঘটেছে। তা হলো- নিজেদের ১৫ বছর বয়সী মেয়েকে ৬০ বছর বয়সী এক নাইজেরিয়ান ব্যবসায়ীর সঙ্গে বিয়ে দিয়েছেন তার বাবা-মা।

ভারতের কর্নাটকে এই বিয়ের ঘটনা ঘটেছে। সম্প্রতি এ ঘটনাটি প্রকাশিত হয়েছে।

জানা যায়, নাইজেরিয়ান ওই ব্যবসায়ীর নাম আলহাজি আবাদান। মাসে কয়েক আগে ঘরোয়া পরিবেশে বিয়ের পর কনেকে নিজ দেশে নিয়ে গেছেন নাইজেরিয়ান ওই বর। 

এ ঘটনা নিয়ে ভারতীয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে রীতিমতো প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে। 

জানা গেছে, ব্যবসায়ীক সূত্রে ভারতের কর্নাট রাজ্যে আসা-যাওয়া ছিল নাইজেরিয়ান ওই ব্যক্তির। এভাবে কর্নাটকের গুলবার্গার জামির আহমেদ সৌতের পরিবারের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে ওঠে আবাদান নামের ব্যবসায়ীর।

এক পর্যায়ে মাহমুদ আলীর ছোট কন্যা কানিস ফাতিমাকে বিয়ের প্রস্তাব দেন আবাদান। সম্পদশালী ব্যবসায়ীর কাছ থেকে প্রস্তাব পেয়ে কোনো রকম কালক্ষেপণ না করে রাজি হয়ে যান জামির আহমেদ।

যদিও এ বিয়ে নিয়ে তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে, কর্নাটকের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীদের অনেকেই। 
এ বিষয়ে নাতাশা চৌহান নামে এক নারী লিখেছেন, ‘এটি অনৈতিক কাজ। এ ঘটনাকে কোন ভাবেই বিবাহ বলা যায়। আদতে মেয়েটিকে বিক্রি করে দেয়া হয়েছে।’

‘গার্লস নট ব্রাইড’ নামে সংগঠনের তথ্য মতে, ভারতে বাল্যবিয়ের হার বিশ্বের মধ্যে সর্বোচ্চ। দেশটিতে প্রায় ৪৭ ভাগ মেয়ের বিয়ে হয় বয়স ১৮ বছর হওয়ার আগেই। বিহারে এ হার ৬৯ ভাগ পর্যন্ত।

&dquote;&dquote;
তবে বেশিরভাগ বিয়ে হয় ১৫ থেকে ১৮ বছর বয়সীদের মেয়েদের ক্ষেত্রে। ১৫ বছর বয়সী মেয়েদের বিয়ের ঘটনাও খুব বেশি হয় না।

এখনও ভারতের অনেক সম্প্রদায় মেয়েদের অর্থনৈতিক বোঝা মনে করে। তাই দ্রুত কন্যাদেরকে বিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে থাকেন দেশটির বহু বাবা-মা।

বিডি২৪লাইভ/টিএএফ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: