প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

আ’লীগের ৩২ নেতা কর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগ

১৪ ডিসেম্বর ২০১৮ , ০৬:০০:০০

ফাইল ফটো

বগুড়ার ধুনটে বিএনপির প্রার্থী জি এম সিরাজের গাড়ি বহরে হামলা ও যুবদল নেতার বাড়িতে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় আওয়ামী লীগের ৩২ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে থানায় পৃথক ২টি অভিযোগ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৩ ডিসেম্বর) ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইসমাইল হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন,এর মধ্যে বিএনপি প্রার্থীর গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগটি থানায় মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হয়েছে এবং যুবদল নেতার বাড়িতে অগ্নিসংযোগের অভিযোগটি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার এলাঙ্গী বাজার এলাকায় সোমবার সন্ধ্যার দিকে নির্বাচনী প্রচারকালে বিএনপিকর্মী নাদিম হোসেন (২৬) ও মাসুদ রানাকে (২২) মারধর করে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। এ ঘটনার প্রতিবাদ করেন এলাঙ্গী ইউনিয়ন যুবদলের সদস্য রাঙ্গামাটি গ্রামের মুরাদ হোসেন। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা রাত সাড়ে ১১টার দিকে মুরাদ হোসেনের বাড়িতে পেট্রল ঢেলে অগ্নিসংযোগ করে।

অগ্নিকাণ্ডে ৩টি ঘর, মোটরসাইকেল, টিভি, ফ্রিজ, খাদ্যশস্য ও আসবাবপত্রসহ প্রায় ২০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। হামলাকারীরা একই সময় বিএনপিকর্মী রাঙ্গামাটি গ্রামের মুনজুরুল হক ও ভুলু মিয়ার দোকানঘর ভাঙচুর করে।

বিএনপি প্রার্থী জি এম সিরাজ মঙ্গলবার (১১ ডিসেম্বর) সকালের দিকে যুবদল নেতা মুরাদ হোসেনের বাড়ি পরিদর্শনের উদ্দেশে রওনা হন। সকাল সাড়ে ১১টার দিকে জি এম সিরাজ ধুনট শহরের কলাপট্রি এলাকায় পোঁছালে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা হামলা চালায়। হামলাকারীরা জি এম সিরাজের ব্যক্তিগত গাড়িসহ ৩টি মাইক্রোবাস ও ২০টি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করেছে। এ ছাড়া আহত করে বিএনপির ২০ নেতাকর্মীকে।

এ ঘটনায় বিএনপি প্রার্থী জি এম সিরাজ বাদী হয়ে বুধবার রাতে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। থানা পুলিশ অভিযোগটি তাৎক্ষণিকভাবে নিয়মিত মামলা হিসেবে রেকর্ড করেছে (মামলা নম্বর ৯)। ওই মামলায় কোনো আসামির নাম উল্লেখ নেই। তবে আওয়ামী লীগের অজ্ঞাত নেতাকর্মীরা এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে আরজিতে উল্লেখ করা হয়।

এদিকে রাঙ্গামটি গ্রামের যুবদল নেতা মুরাদ হোসেনের বাড়িতে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় তার মা নিলুফা বেওয়া বাদী হয়ে বুধবার রাতে থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছেন। ওই অভিযোগে উপজেলার এলাঙ্গী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও এলাঙ্গী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম এ তারেক হেলালসহ ৩২ নেতাকর্মীর নাম রয়েছে। এ ছাড়াও অজ্ঞাত আরো ৩০/৩৫ জন আসামির নাম আরজিতে উল্লেখ রয়েছে।

বিডি২৪লাইভ/এজে

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: