দিলওয়ার খান

বিশেষ প্রতিনিধি, নেত্রকোনা

ঐক্যফ্রন্ট প্রার্থীর বাসায় হামলা

১৪ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৮:০৪:২৬

ছবি: প্রতীকী

নেত্রকোণা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও নেত্রকোণা বারহাট্টা আসনের ঐক্যফ্রন্টের ধানের শীষের প্রার্থী অধ্যাপক ডাঃ আনোয়ারুল হক এর বাসভবনে শুক্রবার (১৪ ডিসেম্বর) সাড়ে ১১ টায় সাংবাদিক সম্মেলনের পরপরই দুবৃত্তরা বাসাসহ ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানে হামলা ও ব্যাপক ভাংচুর করে।। ঘটনার পরে পুলিশ অধ্যাপক ডাঃ আনোয়ারুল হকের বাসভবন ঘেরাও করে বিএনপির ৩২জন নেতা কর্মীকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

সাংবাদিক সম্মেলনে অধ্যাপক ডাঃ আনোয়ারুল হক বলেন, মাঠে কাজ করার মতো কোন পরিবেশ নেই। একদিকে যেমন পুলিশী হয়রানী ও ধরপাকড় চলছে অন্যদিকে সরকারি দলের লোকজন হামলা ও ভাংচুরসহ বাধাগ্রস্থ করছে নির্বাচনকে। পুলিশী হয়রানী ও রাজনৈতিক হয়রানী হামলা-মামলা বন্ধের দাবী জানান।

তিনি বলেন, নির্বাচনের প্রচারণার শুরুর দিন থেকেই নেত্রকোণা সদরে ১টি, বারহাট্টায় ২টি, দুর্গাপুরে ৩টি, কলমাকান্দায় ৩টি, আটপাড়ায় ১টি, কেন্দুয়ায় ৩টি মামলা হয়েছে।

গতকালকে সদর উপজেলার আমতলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শফিউল্লাহ্ শফি, মোহগঞ্জ পৌরসভার সাবেক মেয়র মাহাবুবন্নবী শেখ, বারহাট্টা ইউনিয়ন বিএপির সভাপতি কামাল হোসেন কে পুলিশ গ্রেফতার করে।

এমনাবস্থায় নির্বাচনী কার্যক্রম পরিচালনা করতে ব্যহত হচ্ছে। সাংবাদিক সম্মেলনে এসময় উপস্থিত ছিলেন এড.নুরুজ্জামান নুরু, সানাউল হক মাসুম, সালাউদ্দিন খান মিলকী, আজিজুল হক।

সাংবাদিক সম্মেলনের পরপরেই কিছু দুবৃত্তকারীরা ডাঃ আনোয়ারুল হকের বাসভবনে ডুকে মোটর সাইকেসহ ব্যাপক ক্ষতি ও অপরদিকে নাবিলা ডায়াগনস্টিক সেন্টারে প্রবেশ করে ভাংচুর করে। পুলিশ এসময় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীর বাসা থেকে ৩২ জন নেতাকর্মীকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

নেত্রকোণা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ বোরহান উদ্দিন খান জানান, নাশকতা ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির জন্য ৩২ জনকে আটক করা হলেও ২২ জনের বিরুদ্ধে নাশকতার মামলার প্রস্তুতি চলছে।

বিডি২৪লাইভ/এজে

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: