প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত

শিমুল বারী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

১৬ ই ডিসেম্বর

বিজয় উৎসবে মেতেছে দেশ

১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৬:১৩:৫৭

ছবি: ইন্টারনেট

স্বাধীনতা তোমার জন্য ভাষা আন্দোলনের রক্তিম ইতিহাস। বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ঘটনা এবারের সংগ্রাম, মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম। স্বাধীনতা যুদ্ধের বিভীষিকাময় ঘটনা এর বিনিময়ে অর্জিত আমাদের বিজয়।

আজ পালিত হচ্ছে ৪৭-তম মহান বিজয় দিবস। নয় মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ শেষে ৩০ লাখ শহীদের রক্তে ও দুই লাখ মা-বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে আজকের দিনে আমরা পেয়েছি স্বাধীনতা। নানান আয়োজনের মধ্য দিয়ে দেশর জনগণ ৪৭-তম বিজয় উৎসব উদযাপন করছে।

পাকিস্তানি শাসকদের শোষণ, নিপীড়ন আর দুঃশাসনের কুহেলিকা ভেদ করে ১৯৭১ সালের এই দিনটিতে বিজয়ের প্রভাতী সূর্যের আলোয় ঝিকমিক করে উঠেছিল বাংলাদেশের শিশির ভেজা মাটি। অবসান হয়েছিল পাকিস্তানি শাসক গোষ্ঠীর শোষণ, বঞ্চনা আর নির্যাতনের অধ্যায়ের। নারী-পুরুষ-শিশু সবার চোখে ঠাঁই পেয়েছিল সীমাহীন আনন্দের অশ্রু। বিজয়ের অনুভূতি।

যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস-২০১৮ উদযাপনের লক্ষ্যে জাতীয় পর্যায়ে ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। আজ ঢাকায় প্রত্যুষে ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসটির সূচনা হবে। সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন।

এরপর মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রীর নেতৃত্বে উপস্থিত বীরশ্রেষ্ঠ পরিবার, যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ও বীর মুক্তিযোদ্ধারা ফুল দিয়ে শহীদদের শ্রদ্ধা জানাবেন। বাংলাদেশে দায়িত্বরত বিদেশি কূটনীতিকরা, বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনসহ সর্বস্তরের জনগণ ফুল দিয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাবেন। দিবসটি উপলক্ষে বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক আলোচনা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, শিশুদের চিত্রাঙ্কন, রচনা ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতা এবং মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনের আয়োজন করেছে।

এছাড়া মহানগর, জেলা ও উপজেলায় মুক্তিযোদ্ধা এবং শহীদ পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হবে। বাংলাদেশ ডাক বিভাগ স্মারক ডাকটিকিট প্রকাশ করবে। ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলোতে দেশের শান্তি, সমৃদ্ধি ও অগ্রগতি কামনা করে বিশেষ দোয়া ও উপাসনার আয়োজন করা হবে। এতিমখানা, বৃদ্ধাশ্রম, হাসপাতাল, জেলখানা, সরকারি শিশু সদনসহ অনুরূপ প্রতিষ্ঠানগুলোতে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হচ্ছে।

শিল্পকলা একাডেমি: বিজয় দিবস উপলক্ষে দুই দিনের কর্মসূচি হাতে নিয়েছে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি। শনিবার বিকালে একাডেমির নন্দন মঞ্চে প্রথম দিনের আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শুরু হয়। আজ সকালে সাভারে স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর মধ্য দিয়ে শুরু হয় একাডেমির কার্যক্রম। এদিন বিকাল ৫টায় একাডেমির নন্দন মঞ্চে আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

বাংলা একাডেমি: বিকালে একাডেমির নজরুল মঞ্চে একক বক্তৃতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। একক বক্তৃতা করবেন অধ্যাপক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম। সভাপতিত্ব করবেন বাংলা একাডেমির সভাপতি জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান। স্বাগত বক্তৃতা করবেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন। সন্ধ্যায় রয়েছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

ছায়ানটে হাজারও কণ্ঠে দেশের গান: ছায়ানটের এবারের আয়োজন বিকাল পৌনে ৪টায় অনুষ্ঠিত হবে। সবাই মিলে হাজারও কণ্ঠে দেশের গান গাইবার এ নৃত্যগীতানুষ্ঠান যথারীতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে অনুষ্ঠিত হবে। সর্বসাধারণের অংশগ্রহণ থাকবে এতে। তবে যারা আসবেন তাদের পোশাকে থাকতে হবে জাতীয় পতাকার একটি রং সবুজ।

জাতীয় জাদুঘর: জাতীয় জাদুঘর বিভিন্ন অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করেছে। অনুষ্ঠানমালায় রয়েছে- জাতীয় জাদুঘরে সংগৃহীত মুক্তিযুদ্ধের স্মারক, মুক্তিযুদ্ধকালীন সংবাদপত্র ও মুক্তিযুদ্ধের আলোকচিত্রের সপ্তাহব্যাপী বিশেষ প্রদর্শনীর উদ্বোধন। আরও থাকছে দেশের বিশিষ্ট কবিদের স্বকণ্ঠে বিজয়ের কবিতা পাঠ, বিশিষ্ট বাচিক শিল্পীদের উচ্চারণে বিজয়ের কবিতা আবৃত্তি ও বিজয়ের গান।

আজ বিকেল ৫টায় এ অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধন করবেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সৈয়দ হাসান ইমাম ও দেশবরেণ্য কবি নির্মলেন্দু গুণ। প্রধান অতিথি থাকবেন সংস্কৃতি সচিব মো. নাসির উদ্দিন আহমেদ। সভাপতিত্ব করবেন বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সভাপতি শিল্পী হাশেম খান।

মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর: মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর ‘তরুণের হাতে মুক্তির দায়ভার : স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী হোক স্বদেশের সুবর্ণ সময়’ প্রতিপাদ্যে সপ্তাহব্যাপী অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। আজ সকালে জাতীয় সঙ্গীত ও জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে শিশু-কিশোর আনন্দানুষ্ঠান শুরু হয়।

বিডি২৪লাইভ/এসবি/এমআর

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: