নবীগঞ্জে ফিরেছেন ড. রেজা কিবরিয়া

১৮ ডিসেম্বর ২০১৮ , ০৫:২৬:০৭

ছবি: সংগৃহীত

হবিগঞ্জ-১আসনের (নবীগঞ্জ বাহুবল) জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী ড. রেজা কিবরিয়া মঙ্গলবার (১৮ ডিসেম্বর) দুপুরে তার নিজ নির্বাচনী এলাকায় গ্রামের বাড়ী নবীগঞ্জের জালালসাপ গ্রামে ফিরে এসেছেন। বুধবার সকালে নতুন করে নির্বাচনী প্রচারনা শুরু করবেন। 

জানাযায় গত ১৬ ডিসেম্বর সকালে নিরাপত্তাহীনতার অভিযোগ এনে তিনি তার নির্বাচনী এলাকা ত্যাগ করে ঢাকায় চলে যান। এ ব্যাপারে বিভিন্ন মিডিয়ায় সংবাদ প্রকাশ হয়। বিষয়টি লিখিত ভাবে নির্বাচন কমিশনকেও জানানো হয়। গত ১৭ ডিসেম্বর জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণার সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন। গতকাল সকালে সাংবাদিককের সাথে আলাপের সময় ড. রেজা কিবরিয়া জানান। তিনি বিশেষ কাজে ঢাকায় গিয়েছিলেন। তার নিরাপত্তা নিয়ে বিভিন্ন মিডিয়ায় যে খবর প্রকাশ হয়েছে বিষয়টি সে রকম নয়। সাংবাদিকরা একটু বাড়িয়ে লিখেছে।

তিনি বলেন, আমি নির্বাচনী ইশতেহারের কাজে ঢাকায় গিয়েছিলাম। আমি আজকে সকালে এলাকায় ফিরেছি এবং বাহুবলে গণসংযোগ করেছি। সকল ভয়ভীতি ও হুমকির উর্ধ্বে উঠে আমি শেষ পর্যন্ত নির্বাচনী মাঠে থাকব। তিনি আরও বলেন এলাকার মানুষের কল্যাণের জন্যই রাজনীতিতে এসেছি আমি সাধারণ মানুষের পাশে থেকে এ নির্বাচনে বিজয়ী হতে চাই। আমি শতভাগ আশাবাদী ৩০ তারিখে বিজয় নিয়ে ঢাকা ফিরব। এদিকে গতকাল নবীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির এক পরামর্শ ও বর্ধিত সভা সাবেক সাংসদ শেখ সুজাত মিয়ার বাসভবনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

উপজেলা বিএনপির সভাপতি শেখ সুজাত মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত পরামর্শ সভায় উপজেলা, পৌর ও  বিভিন্ন  ইউনিয়ন কমিটির সভাপতি সম্পাদক উক্ত সভায় বক্তব্য রাখেন। 

সভায় সিদ্ধান্ত হয় দলের বৃহত্তর স্বার্থে ও দলের চেয়াপারসন খালেদাজিয়া মুক্তির জন্য আজ (বুধবার) থেকে বিএনপির নেতা কর্মীরা ধানের শীষের পক্ষে প্রচারণা চালাবেন। সভায় আরও সিদ্ধান্ত হয় ড. রেজা কিবরিয়া বিএনপির সাবেক সাংসদ শেখ সুজাত মিয়াকে যথাযথ মুল্যায়ন না করা পর্যন্ত তাকে নিয়ে বিএনপি কোনো প্রচারণা করবে না। বিএনপির আলাদা ভাবে তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাবে। এ ব্যাপারে সাবেক সাংসদ শেখ সুজাত মিয়ার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। 

তিনি এ প্রশ্নের জবাবে বলেন, দলীয় সিদ্ধান্ত দলে নেতা কর্মীরা নিবে। এদিকে হবিগঞ্জ -১ আসনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী ড. রেজা কিবরিয়ার কোন পোষ্টারিং বা প্রচারনা এলাকায় চোখে পড়েনি। 

গতকাল সরজমিনে তার গ্রামের বাড়ী গিয়ে দেখা যায় বাড়ীর পাশে গোপলার বাজার ব্যতিত আর কোথায়ও পোষ্টারিং করা হয়নি। এ ব্যাপারে ড. রেজা কিবরিয়ার দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি বলেন গ্রামে গ্রামে আমার লোকজন পোষ্টার নিয়ে চলে গেছে। 

আগামীকাল থেকে আমি নিজেও প্রচার পত্র বিলি করব। নিরাপত্তাহীনতার বিষয়ে বলেন আমি কখনও ভয়পাইনি এখনও ভয় পাইনা। জনগণ হচ্ছে আমার শক্তি আমি তাদের মাঝেই থাকতে চাই।  

বিডি২৪লাইভ/এজে

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: