হাবিবুর রহমান

কুমিল্লা প্রতিনিধি

‘দেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নৌকায় ভোট দিন’

১৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৮:০১:০২

ছবি: প্রতিনিধি

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রী কমিটির প্রচারের অংশ হিসেবে বাংলাদেশের প্রখ্যাত অভিনেতা ও অভিনেত্রীসহ সাংস্কৃতিক অঙ্গনের শিল্পীরা বুধবার (১৯ ডিসেম্বর) চৌদ্দগ্রামের উজিরপুর ইউনিয়নের চাঁন্দশ্রী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের পথসভায় রেলপথ মন্ত্রী মোঃ মুজিবুল হক এমপির জন্য নৌকার পক্ষে ভোট চেয়ে প্রচারণায় অংশ নেন।

এসময় তারাকারা বলেন, এদেশ এগিয়ে গেছে অনেক দূর যার একমাত্র অবদান বাংলাদেশর বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। যার হাত ধরে আজ বাংলাদেশ বহুদূর এগিয়ে গিয়েছে। একসময় এদেশকে তলা বিহীন ঝুড়ির সাথে তুলনা করা হতো। আজ জননেত্রীর নেতৃত্বে দেশ তলা বিহীন ঝুড়ি নয়। আজ বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হয়েছে। তাই দেশে উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখতে চৌদ্দগ্রামে রেলপথ মন্ত্রী মোঃ মুজিবুল হক মুজিব ভাইকে নৌকা মার্কায় ভোট দিন।

এসময় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ উপ-কমিটির প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলামের নেতৃত্বে উপস্থিত থেকে নৌকা মার্কার পক্ষে ভোট চান চিত্রনায়ক সায়মন সাদি, চিত্রনায়ক শাকিল খান, চিত্রনায়ক ও মডেল সিয়াম, সংবাদ উপস্থাপিকা ইশিকা আজিজ, চিত্রনায়িকা অরুনা বিশ্বাস, অভিনেত্রী রোকেয়া প্রাচী, চিত্রনায়িকা জোতিকা জ্যোতি।

এর পূর্বে রেলপথমন্ত্রী চৌদ্দগ্রাম উপজেলার উজিরপুর ইউনিয়নের চকলক্ষীপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্র, শিবের বাজার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র, চান্দশ্রী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে নির্বাচনী পথসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন। ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতাদের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে রেলপথ মন্ত্রী প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন,জামাত বর্তমানে বিএনপির মার্কা নিয়ে ভোট চাইতে এসেছে এরা বারে বারে রূপ পাল্টায়। আওয়ামীলীগ কোনদিন কথা দিয়ে মানুষের সাথে বেঈমানী করেনা রূপ পাল্টায় না।

বিএনপি এখন অন্যদলের নিকট থেকে মার্কা নিয়ে মাঠে আসে। আওয়ামী লীগ বাংলাদেশ সৃষ্টি হওয়ার পর থেকেই নৌকা নিয়ে নির্বাচন করেছে বর্তমানেও নৌকা নিয়ে মাঠে এসেছে। আর ধর্মব্যবসায়ীরা অতিতে ইসলামের নাম ব্যবহার করে নির্বাচিত হয়েছে। ধর্মের জন্য অনেক কিছু করবে বলে অথচ নির্বাচিত হয়ে ইসলামের জন্য মসজিদ মদ্রাসার জন্য কিছুই করেনি। সারা দেশে এদের কোথাও কোন অবস্থান নেই। এরা বাংলাদেশে রাজনৈতিক ভাবে নিষিদ্ধ। এরা ধর্ম ব্যবসায়ী এরা সুযোগ সন্ধ্যানী তাই তাদের যে ভাবে দেশবাসী প্রত্যাখান করেছে চৌদ্দগ্রাম থেকেও আপনারা প্রত্যাখান করবেন।

মন্ত্রী আরো বলেন, আমার সাথে যার নির্বাচিত করেছেন আমি নির্বাচিত হয়ে কাউকে ভুলিনা। আমার সাথে যারা নির্বাচনে আসেন তারা একজন নিজেকে জমিদারের ছেলে অন্যজন পীরের ছেলে পরিচয় দেয়। তারা নির্বাচিত হয়ে সাধারণ মানুষকে ভুলে যায়। আমি একজন কৃষকের ছেলে এটাই আমার বড় পরিচয়। তাই বলি কৃষকের ছেলে এমপি হলে চৌদ্দগ্রামের মানুষকে ভুলেনা। আমি অতিতেও আপনাদের ভোট নিয়ে নির্বাচিত হয়ে আপনাদের বিপদে আপদে পাশে ছিলাম। চৌদ্দগ্রামকে ব্যাপক উন্নয়নের মাধ্যমে কুমিল্লাতে একটি উন্নত উপজেলায় পরিণত করার চেষ্টা করেছি। আমি আপনাদের পাশে ছিলাম আছি এবং আজিবন থাকবো।

পথসভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, চৌদ্দগ্রাম উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুস সোবহান ভূঁঞা হাসান, চৌদ্দগ্রাম পৌরসভার মেয়র মিজানুর রহমান, জেলা পরিষদ সদস্য ফারুক আহাম্মেদ মিয়াজী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এ বি এম এ বাহার, উপজেলা যুবলীগের আহব্বায়ক ও শ্রীপুর ইউপি চেয়ারম্যান শাহজালাল মজুমদার, কাশিনগর ইউপি চেয়ারম্যান মোশারেফ হোসেন, উজিরপুর ইউপি চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন খোরশেদ প্রমূখ।

বিডি২৪লাইভ/এজে

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: