চাঁদের উল্টো পিঠ

১৩ জানুয়ারি ২০১৯ , ০১:০১:০০

ছবি: সংগৃহীত

পৃথিবী থেকে লুকিয়ে রাখা চাঁদের অচিনপাশ থেকে নিজেদের ছবি তুলে পাঠিয়েছে চীনের নভোযান চ্যাং’ই ৪। চীনের রোভার ও ল্যান্ডার চাঁদ পৌঁছানোর পর সেখান থেকে একে অন্যের ছবি তুলে পৃথিবীতে পাঠিয়েছে। নভোযান যেখানে অবতরণ করেছে সেখানকার ভিডিও ও প্যানারমিক ছবি প্রকাশ করেছে চীনা মহাকাশ সংস্থা।

অবতরক (ল্যান্ডার) যান এবং গবেষণারত রোবট (রোভার) একে অপরের যেসব ছবি তুলেছে, সেসব ছবি প্রকাশ করেছে চীনের রাষ্ট্রীয় সম্প্রচার মাধ্যম সিসিটিভি।

৩৬০ ডিগ্রির একটি প্যানোরমিক ছবিও হাতে পেয়েছেন বেইজিংয়ে নিয়ন্ত্রণকক্ষে থাকা অভিযানের বিজ্ঞানীরা। তারা এসব ছবিকে ‘রোমাঞ্চকর’ এবং এ ঘটনাকে ‘মহাসাফল্য’ বলে অভিহিত করেছেন।

এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে চীনা বংশোদ্ভূত মার্কিন জ্যোতির্বিজ্ঞানী ইয়ে কুয়ানচি বলেন, ‘সত্যি বলতে কী, এ এক মহাতাৎপর্যপূর্ণ মুহূর্ত। বিশেষ করে, বিজ্ঞানের ক্ষেত্রে। চাঁদের উল্টো পাশে নভোযান অবতরণ মানব ইতিহাসে এই প্রথম। আর চীনের জন্য এ এক অন্যরকম অর্জন, এমন কিছু তারা করে দেখাল, যা আগে কখনো কোনো জাতি ভাবতেও পারেনি।’

চীনের জাতীয় মহাকাশ সংস্থা সিএনএসএ মনুষ্যবিহীন এই চন্দ্রাভিযান পরিচালনা করছে। ৭ ডিসেম্বর চন্দ্রযানটি উৎক্ষেপণ করা হয়। অনুসন্ধানী রোবটটির নাম জেড র‌্যাবিট ২। এটি দেড় মিটার লম্বা; প্রস্থ ও উচ্চতায় এক মিটার। ছবিগুলোয় দেখা যায়, অবতরক ও রোবটটি যেখানে রয়েছে, সেখানে বেশ কিছু গিরিখাত আছে। এসব গিরিখাতের পৃষ্ঠতল পাথুরে কিন্তু অমসৃণ। ফলে রোবটটিকে নিয়ন্ত্রণ করা বেশ কষ্টসাধ্যই হবে।

রোভার ও ল্যান্ডার নানা উপকরণ নিয়ে সেখানে গেছে যেগুলো সেখানকার ভূতাত্ত্বিক গবেষণা কাজে নিয়োজিত থাকবে।

&dquote;&dquote;চাং'ই-৪ নামের এই অভিযানে চাঁদে ‘ভন কারমান ক্র্যাটার’ নামের যে অংশে রোবট যানটি নেমেছে, চাঁদের সেই অংশটি কখনো পৃথিবীর দিকে ঘোরে না। ফলে এই অংশটি নিয়ে বরাবরই মানুষের আগ্রহ রয়েছে।

আর চাঁদের এই অন্ধকার বা উল্টো দিকে এবারই প্রথম কেউ কোনো নভোযান পাঠালো। শিচ্যাং উৎক্ষেপণ কেন্দ্র থেকে রোবট যানটি পাঠানো হয়েছে।

বিডি২৪লাইভ/এইচকে

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: