প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

হবিগঞ্জের ৩ উপজেলায়

৪ লাখ গ্রাহক সপ্তাহে ২ দিন বিদ্যুৎ পাচ্ছে না

১৩ জানুয়ারি ২০১৯ , ০৭:০০:০০

ছবি : প্রতীকী

বছরের শুরু থেকেই সপ্তাহে ২ দিন বিদ্যুৎ পাচ্ছেন না হবিগঞ্জের ৩ উপজেলার ৪ লাখ গ্রাহক। আগামী ফেব্রুয়ারি মাস জুড়েই জেলার নবীগঞ্জ, বানিয়াচং ও আজমিরীগঞ্জ উপজেলার বিদ্যুৎ সরবরাহ চলবে এই নিয়মে। এর ফলে বিভিন্ন নাগরিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন জনগণ। সাব স্টেশনগুলোর উন্নয়ন কাজের জন্যই এটা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে, হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি।

ভুক্তভোগী কয়েকজন এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়, ২০১৯ সালের শুরু থেকেই সপ্তাহের প্রতি শুক্রবার এবং শনিবার সকাল ৮টা থেকে সন্ধা ৫টা পর্যন্ত বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ রাখা হচ্ছে। অনেক স্থানে সন্ধ্যার পরও দেয়া হচ্ছে না বিদ্যুৎ। এতে জনগণের দৈনন্দিন কাজে দেখা দিয়েছে নানা সমস্যা।

নবীগঞ্জ উপজেলার অরবিট হসপিটালের বাসিন্দা ডা: শামীম আহমদ জানান, সপ্তাহে দুইদিন বিদ্যুৎ না থাকায় বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। শুক্রবার ও শনিবার (১২ জানুয়ারি) সারাদিন বিদ্যুৎ না থাকায় তার ফ্রিজে থাকা বিভিন্ন ধরণের খাবার নষ্ট হয়েছে। এছাড়া সন্ধ্যায় বিদ্যুৎ দেওয়ার কথা থাকলেও ৭টা পর্যন্ত আসেনি। এতে এসএসসি পরিক্ষার্থীসহ শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ায়ও ব্যাঘাত ঘটছে। মোমবাতি জ্বালিয়ে লেখাপড়া করতে হচ্ছে তার ভাগ্নী সোহা ও ভাগ্নে সিয়ামসহ আশপাশের শিক্ষার্থীদের।

আউশকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোক্তা রনঞ্জিত দাশ জানান, তিনি প্রতিদিন সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত উপকারভোগীদের সেবা দিতে ব্যস্ত থাকেন। শুক্রবার অফিস বন্ধ থাকায় শনিবার একটু কাজের চাপ পড়ে। সারাদিন বিদ্যুৎ না থাকলে সাধারণ মানুষ চরম দুর্ভোগে পড়বে। বিশেষ করে অনেক বিদেশ যাত্রী জন্ম নিবন্ধন সনদের জন্য এসেও ফিরে যাবেন। শনিবার সারাদিনের মধ্যে অন্তত কয়েক ঘণ্টা হলেও বিদ্যুৎ সংযোগের দাবি জানিয়েছেন তিনি।

কৃষক ওয়ারিশ মিয়া জানান, তিনি ২৫ মন ধান ভাঙ্গানোর জন্য সারাদিন রাইস মিলে অপেক্ষমান ছিলেন। সারাদিন বিদ্যুৎ না থাকায় কাজ হয়নি। শনিবারও বিদ্যুৎ আসবে না। এতে দুইদিন তাকে কষ্ট করতে হবে।

এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার মো: মোতাহের হোসেন জানান, জেলার নবীগঞ্জ, বানিয়াচং ও আজমিরীগঞ্জ উপজেলার ৩৩ কেভি লাইন একটি মাত্র ফিডারের মাধ্যমে পরিচালিত হয়। যে কারণে গরমের দিনে অত্যাধিক লোডে অনেক জায়গায় সমস্যার সৃষ্টি হয়। তাই ডাবল সার্কিট করার জন্য মেরামত কাজ চলছে। তিনি আশা করছেন ফেব্রুয়ারী মাসের মধ্যেই কাজ শেষ হবে। কাজ শেষ হওয়ার পূর্ব পর্যন্ত সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত বিদ্যুৎ সংযোগ থাকবে না ওই তিনটি উপজেলায়।

বিডি২৪লাইভ/টিএএফ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: