সম্পাদনা: শাহরিয়ার আলম

ডেস্ক এডিটর

কেন মায়ের নামের জার্সিতে খেলছে রাজশাহী?

১৬ জানুয়ারি, ২০১৯ ১৫:৪৯:৪৬

ছবি: ইন্টারনেট


এবার বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগে সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে ঢাকা ডায়নামাইটসের বিপক্ষে নিজ নামের পরিবর্তে মায়ের নাম লেখা জার্সিতে মুখোমুখি রাজশাহী কিংসের সকল খেলোয়াড়। পৃথিবীতে সবচেয়ে আপন মানুষটির নাম মা। যার তুলনা আসলে কিছুতেই হয় না। এই মা'কে শ্রদ্ধা জানাতে কি বিশেষ দিবসের প্রয়োজন আছে? রাজশাহী কিংস তেমনটা মনে করে না। তাই কোনো উপলক্ষ্য না থাকলেও মায়ের নামের জার্সি পড়ে মাঠে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজশাহী শিবির।

বিশ্ব ক্রিকেট বা ফুটবলে ব্যাপারটা খুব প্রচলিত না হলেও, আগে ঘটেছে এমন কিছু যেখানে মায়েদের নাম লেখা জার্সি পরে মাঠে নেমেছেন ক্রীড়াবিদরা।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের অক্টোবরে ভাইজাগে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের একটি ম্যাচে নিজেদের মায়ের নামা লেখা জার্সি পরে খেলতে নেমেছিল ভারত। ভারতীয় দলের তৎকালীন পৃষ্ঠপোষক স্টার স্পোর্টস উদ্যোগ নেয় এমনটা করার।

এরপর ২০১৮ সালে মা দিবসে স্প্যানিশ ক্লাব ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে বার্সেলোনার ফুটবলাররা মায়েদের নামে জার্সি পরে খেলতে নামেন। এই উদ্যোগ নেয় ইউনেস্কো।

ধরুন মাঠে খেলতে নেমেছেন সৌম্য সরকার কিন্তু জার্সিতে তার পিঠে লেখা নমিতা। দেখে হঠাৎ ভড়কে যেতে পারেন দর্শকেরা। কিন্তু এমনটাই বাংলাদেশের ক্রিকেটের মাঠে।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ষষ্ঠ আসরে বুধবারের (১৬ জানুয়ারি) ম্যাচে ঢাকা ডায়নামাইটস ও রাজশাহী কিংস মুখোমুখি হয়েছে। রাজশাহী কিংস দলের ক্রিকেটারদের মায়েদের প্রতি সম্মান প্রদর্শনের উদ্যোগে প্রত্যেক ক্রিকেটার জার্সিতে মায়ের নাম লিখে মাঠে নেমেছে।

রাজশাহী কিংসের উদ্যোগের পেছনের কারণ

রাজশাহী কিংসের মিডিয়া ম্যানেজার অম্লান হোসেন মোস্তাকিম। তিনি জানান, রাজশাহী কিংস এবারের বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে কিছুটা ব্যতিক্রমী ধারা আনার চেষ্টা করছে। তারই ফলশ্রুতিতে এই উদ্যোগ।

‘আমরা একটু আলাদা কিছু করার চেষ্টা করি, হাতিরঝিলে জার্সি উন্মোচন করি। আমাদের প্রধান নির্বাহী আজিজুল হক প্রথম ভাবেন একটা দিন মায়েদের উৎসর্গ করা যায় কি না।’

‘আমরা এটা মা দিবস বা কোনো দিনকে উপজীব্য করে করছি না, মায়েদের স্মরণ করতে কোনো দিন প্রয়োজন হয় না, আমরা একটা ম্যাচকে কেন্দ্র করে মায়েদেরকে একটা দিন উৎসর্গ করতে চাচ্ছিলাম সেটা ঢাকা ডায়নামাইটসের বিপক্ষেই হচ্ছে,’বলছিলেন অম্লান।

ক্রিকেটাররা কী বলছেন?

রাজশাহী কিংসের ক্রিকেটার ক্রিস্টিয়ান জংকারের মায়ের স্তন ক্যান্সার ছিল। কিন্তু তার ক্রিকেটে বেড়ে ওঠার পেছনে অনুপ্রেরণা দিয়ে গেছেন তার মা।

জংকার বলেন, তার মা তাকে সবসময় অনুপ্রেরণা জুগিয়েছেন, মা সুস্থ হয়ে উঠেছেন কিন্তু তার কঠিন দিনগুলোকে সে হাল ছাড়েননি।

সৌম্য সরকার, যার জার্সি নম্বর ৫৯। তার জার্সিতে লেখা থাকবে নমিতা। যিনি সৌম্যর মা।

"সবসময় সবাই মায়ের নাম করে খেলতে যান, মায়েদের কথা স্মরণ করেন, এই উদ্যোগটা আসলেই ভালো, আমরা আমাদের মায়ের নাম লেখা জার্সি পরে খেলতে নামছি ভেবে ভালো লাগছে," সৌম্য সরকার বলছিলেন বিবিসি বাংলাকে।

"মা যখন জানেন যে আমরা মায়েদের নাম লেখা জার্সি পরে খেলতে নামবো তিনি খুব খুশি হন।''

তিনি বলেন, ''এটা খুবই ভালো কথা, জার্সি পরে যাতে মনে রাখার মতো কিছু করতে পারি সেই দোয়া করেন আমার মা, অন্যরকম একটা অনুভূতি এটা," সৌম্য সরকার।

মায়েরা কী বলছেন?

বাংলাদেশের হয়ে সাতটি টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন কামরুল ইসলাম রাব্বি। তার মা সালমা বেগম বিবিসি বাংলাকে বলেন, ‘আমার ছেলে মাকে মনে করে মায়ের নাম লেখা জার্সি পরে খেলবে আমি তো খুবই খুশি।’

‘ছেলে জানিয়েছে, আমি দোয়া করি ছেলে যাতে ভালোভাবে খেলতে পারে, মায়ের দোয়া তো সবসময়ই থাকে ছেলের জন্য,’ বলছিলেন সালমা বেগম।

বিড২৪লাইভ/এসএ

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: